Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:১৬
শ্যামানন্দ হত্যায় মামলা
পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ২৯
ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার উত্তর কাস্টসাগরা গ্রামের রাধামদন গোপাল মঠের সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস (৬৫) ওরফে বাবাজি হত্যাকাণ্ডের পর পুলিশ শুক্রবার রাত থেকে গতকাল ভোর পর্যন্ত জেলাব্যাপী অভিযান চালিয়েছে। এ সময় এক ছাত্রশিবির, চার জামায়াত নেতাসহ ২৯ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাসান হাফিজুর রহমান জানিয়েছেন, শুক্রবার রাত থেকে অভিযান চালিয়ে ২৯ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে শ্যামানন্দ হত্যার ঘটনায় কেউ জড়িত কিনা, খতিয়ে দেখা হচ্ছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ জানান, পুরোহিত আনন্দ গোপাল ও সেবায়েত শ্যামানন্দ দাস হত্যার সঙ্গে জড়িতদের ধরতে ঝিনাইদহে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। খুনিদের গ্রেফতারে সাঁড়াশি অভিযান শুরু হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে। দুপুরে সদর থানার কর্তব্যরত কর্মকর্তা সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) মুজাহিদ জানান, ঘটনার পর থেকে রাধামদন গোপাল মঠে সার্বক্ষণিক পুলিশ পাহারা বসানো হয়েছে। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় একটি মামলা করা হয়েছে। মঠের সভাপতি সুবোল চন্দ্র ঘোষ বাদী হয়ে শুক্রবার রাতে সদর থানায় এ মামলা করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা ৫-৬ জনকে আসামি করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, শুক্রবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সেবায়েত শ্যামানন্দ দাসকে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ঘাতকরা প্রথমে তার মাথায় কুড়াল দিয়ে কোপ দেয়। এরপর ঘাড়ে, পিঠে ও মাথায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে মৃত্যু নিশ্চিত করে মোটরসাইকেলে মাগুরার দিকে পালিয়ে যায়।

মানববন্ধন ও সমাবেশ : হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ এবং ঘাতকদের গ্রেফতার দাবিতে ঝিনাইদহ জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ গতকাল বেলা ১১টার দিকে শহরের পোস্ট অফিস মোড়ে মানববন্ধন করে। পরে একই স্থানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশব্যাপী সব গুপ্তহত্যার বিচার করতে হবে। জঙ্গিগোষ্ঠীকে কঠোর হাতে দমন করতে হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow