Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:২২
হদিস নেই মুছাসহ কিলিং মিশনের তিনজনের
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
হদিস নেই মুছাসহ কিলিং মিশনের তিনজনের

এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতু হত্যার এক মাস হয়ে গেলেও হদিস নেই হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা কামরুল ইসলাম ওরফে মুছা সিকদারের। শুধু মুছা নয়, একইভাবে পুলিশি খাতায় ‘পলাতক’ রয়েছে নুরুল ইসলাম রাশেদ ওরফে ভাগ্নে রাশেদ ও আবদুল নবীর। অন্যদিকে তাদের পরিবার দাবি করছে, তিনজনকেই আটক করেছে পুলিশ। তারা পুলিশ হেফাজতেই রয়েছে। কিন্তু পরিবারের এ দাবি অস্বীকার করে তদন্ত কর্মকর্তারা বলছেন, মুছাকে গ্রেফতার করা গেলে খুলে যাবে হত্যা মামলার রহস্যজট। তাই মুছাসহ সব আসামিকে গ্রেফতারের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ। মুছা সিকদারের স্ত্রী পান্না আক্তার বলেন, ‘মিতু হত্যার পর মুছাকে আটক করেছে পুলিশ। এখন তারা অস্বীকার করছে। মুছা যদি অপরাধ করে থাকে, তাহলে প্রচলিত আইনের মাধ্যমে তাকে শাস্তি দেওয়া হউক। অন্য কোনো পন্থায় নয়। ’ মিতু কিলিং মিশনে সরাসরি অংশগ্রহণকারী নুরুল ইসলাম রাশেদ ওরফে ভাগ্নে রাশেদের ছোট ভাই শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘রাশেদকে গ্রেফতারের পর পুলিশ এখন তা অস্বীকার করছে।

তার ভাগ্যে কী ঘটছে তা এখন বুঝতে পারছি না। ’ জানা গেছে, পুলিশি খাতায় পলাতক থাকা মুছা সিকদার, নুরুল ইসলাম রাশেদ এবং আবদুল নবী মিতু হত্যায় সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। তাদের মধ্যে মুছা এসপি স্ত্রী মিতুকে গুলি করেন এবং মোটরসাইকেল চালিয়ে তিনজনকে নিয়ে পালিয়ে যান।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow