Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ জুলাই, ২০১৬ ০০:০৭
জঙ্গিরা এক সপ্তাহ আগেই বাসা ভাড়া নেয়, তানিম রিমান্ডে
শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলা
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
জঙ্গিরা এক সপ্তাহ আগেই বাসা ভাড়া নেয়, তানিম রিমান্ডে

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় হামলাকারী জঙ্গিরা ঈদের এক সপ্তাহ আগেই বাসা ভাড়া নিয়ে অবস্থান করছিল। শহরের নীলগঞ্জ সড়কের একটি বাসা ভাড়া নিয়েছিল তারা। ১ জুলাই রাতে বাসাটি ভাড়া নিলেও বাসায় উঠেছিল পরদিন। আর ঈদের দিন সকালে বাসার চাবি মালিককে বুঝিয়ে দিয়ে তারা বিদায় নিয়েছিল। শহরের নীলগঞ্জ সড়কের পরশমণি নামে ৪৩২ নম্বর হোল্ডিংয়ের ডাবল ইউনিটের তিনতলা বাসাটির মালিক অবসরপ্রাপ্ত খাদ্য কর্মকর্তা আবদুস সাত্তার। বাসাটির দুতলা পর্যন্ত নির্মাণ কাজ শেষ হলেও তিনতলা অংশটির নির্মাণ কাজ এখনো শেষ হয়নি। নিচতলার পশ্চিম দিকের অংশটি সরকারি গুরুদয়াল কলেজের ছাত্র পরিচয়ে ভাড়া নিয়েছিল জয়নাল আবেদীন নামে এক যুবক। দুটি কক্ষে তারা চারজন থাকবে বলে জানিয়েছিল মালিককে। মাসে ছয় হাজার টাকা ভাড়ার মধ্যে দুই হাজার টাকা অগ্রিম পরিশোধও করেছিল তারা। বাসার মালিক আবদুস সাত্তার এ প্রতিবেদককে এই বিষয়টি জানিয়েছেন। তিনি আরও জানান, তাদের কাছে পরিচয়পত্র চাইলে তারা ঈদের পর বাড়ি থেকে পরিচয়পত্র এনে দেওয়ার কথা  জানিয়েছিল। কিন্তু ঘটনার পর তারা আর বাসায়  ফেরেনি। এ চার যুবকই শোলাকিয়ায় হামলার সঙ্গে জড়িত থাকতে পারে বলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধারণা  করছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন বাসাটি পরিদর্শন এবং বাসার মালিককে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করেছে। পরশমণি বাসাটির পার্শ্ববর্তী একটি বাসার নবম শ্রেণির ছাত্র কাজী আমিনুল হক জানায়, যে চার যুবক বাসাটি ভাড়া নিয়েছিল তারা দিনের বেলায় চলাফেরা করত না। শোলাকিয়ার ঘটনার পর তাদের সম্পর্কে তারা জানতে পারে। বাসার যে অংশটি তারা ভাড়া নিয়েছিল ঘটনার পর পুলিশ সে অংশটি তালাবদ্ধ করে রেখেছে। সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশারফ হোসেন জানান, বিষয়টি তদন্তাধীন আছে।

তানিম রিমান্ডে : কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার সময় আটক জাহিদুল হক তানিমকে ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। পুলিশ তাকে রবিবার সন্ধ্যায় আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে মুখ্য বিচারিক আদালতের বিচারক আবদুস ছালাম খান ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আটক জাহিদুল হক তানিম কিশোরগঞ্জ শহরের পশ্চিম তারাপাশা এলাকার আবদুস সাত্তার চান মিয়ার ছেলে। জাহিদ বর্তমানে পুলিশের হাতে আটক রয়েছে। এ ঘটনায় আটক শরীফুল ইসলাম ওরফে শফিউল ইসলাম ওরফে সাইফুল ইসলাম নামে অপর এক আসামি র‌্যাবের হাতে আটক রয়েছে। তার বাড়ি দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার রানীগঞ্জে। তার পিতার নাম আবদুল হাই।

ঈদের দিন শোলাকিয়া ঈদগাহের প্রায় চারশ গজ পশ্চিমে আজিমউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কাছে পুলিশের ওপর জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটে। এতে দুই পুলিশ, চর শোলাকিয়া সবুজবাগ এলাকার এক গৃহবধূ ও আবির রহমান নামে এক জঙ্গি নিহত হয়।

ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করাই ছিল উদ্দেশ্য : বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন্ন করাই ছিল শোলাকিয়ায় হামলার উদ্দেশ্য। শোলাকিয়ায় জঙ্গি হামলার বিষয়ে দায়েরকৃত মামলার এজাহারে এ কথা উল্লেখ করেছে পুলিশ। রবিবার বিকালে কিশোরগঞ্জ সদর মডেল থানায় মামলাটি দায়ের করেন পাকুন্দিয়া থানার পরিদর্শক মোহাম্মদ সামসুদ্দিন। ঈদের দিন হামলার সময় তিনি চর শোলাকিয়ায় আজিমউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের কাছে চেকপোস্টে নেতৃত্ব দিচ্ছিলেন। এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, জঙ্গি কাজে উদ্বুদ্ধ হয়ে আসামিরা ষড়যন্ত্র ও প্ররোচনার মাধ্যমে দেশের জন নিরাপত্তা, সার্বভৌমত্ব বিপন্ন, জন সাধারণের মধ্যে আতঙ্ক সৃষ্টি করার উদ্দেশ্যে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালায়। সন্ত্রাসবিরোধী আইন-২০০৯ (সংশোধনী-২০১৩) এর ৬ (২)/৮/৯/১০/১২/১৩ ধারায় মামলাটি দায়ের করা হয়। মামলায় আসামি করা হয়েছে দিনাজপুর জেলার ঘোড়াঘাট উপজেলার রানীগঞ্জের আবদুল হাইয়ের ছেলে শরীফুল ইসলাম ওরফে শফিউল ইসলাম ওরফে সাইফুল ইসলাম (২৭) ও কিশোরগঞ্জ শহরের পশ্চিম তারাপাশা এলাকার আবদুস সাত্তারের ছেলে জাহিদুল হক তানিমকে (২৪)। এর মধ্যে শরীফুল র‌্যাবের হাতে এবং জাহিদুল পুলিশের হাতে আটক রয়েছেন। মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কিশোরগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক মোহাম্মদ মুর্শেদ জামানকে। মামলার তদন্তের দায়িত্ব নিয়ে মুর্শেদ জামান বলেন, যত দ্রুত সম্ভব মামলার তদন্ত কাজ শেষ করা হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow