Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : রবিবার, ১৭ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ জুলাই, ২০১৬ ২৩:৪৯
মজনু ও ইলিয়াছ বাহিনীর ১১ বনদস্যু কারাগারে
নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

আত্মসমর্পণকারী সুন্দরবনের বনদস্যু মজনু ও ইলিয়াছ বাহিনীর দুই প্রধানসহ ১১ দস্যুকে গতকাল বিকালে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার দুপুরে মংলায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ২৬টি দেশি-বিদেশি আগ্নেয়াস্ত্র ও বিভিন্ন ধরনের ১ হাজার ২০ রাউন্ড গোলাবারুদ জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করে দুই বনদস্যুবাহিনী। তাদের বিরুদ্ধে  ওইদিন রাতে খুলনার দাকোপ থানায় অস্ত্র আইনে পৃথক দুটি মামলা হয়। জানা যায়, আত্মসমর্পণ শেষে শুক্রবার রাতেই ১১ বনদস্যুকে কড়া পুলিশি পাহারায় মংলা থেকে দাকোপ থানায় আনা হয়। সেখান থেকে গতকাল সকালে মামলার বাদী দাকোপ থানা পুলিশের উপপরিদর্শক পলাশ কুমার দাস ও নিশিকান্ত সরকার খুলনা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলি আদালতে (গ-অঞ্চল) হাজির করেন। বিচারক মজনু গাজী ও ইলিয়াছ গাজীসহ ১১ দস্যুকে খুলনা কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। পরে ১১ বনদস্যুকে কড়া নিরাপত্তার মধ্যে পুলিশ ভ্যানে করে প্রথমে আদালতে ও পরে খুলনা কারাগারে পাঠানো হয়। পুলিশের উপপরিদর্শক পলাশ কুমার দাস বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, দাকোপ থানায় মজনুবাহিনী প্রধানসহ নয়জনের বিরুদ্ধে ১৯৭৮ সালের অস্ত্র আইনের ১৯ (এ) ধারায় একটি (৬ নম্বর) এবং ইলিয়াছবাহিনী প্রধানসহ দুজনের বিরুদ্ধে একই ধারায় পৃথক আরেকটি (৭ নম্বর) মামলা দায়ের হয়েছে। ৬ নম্বর মামলায় মজনু গাজী, রবিউল ইসলাম, ইসমাইল গাজী, এনামুল সরদার, ইদ্রিস আলী, আবুল কালাম আজাদ, মনজু শেখ, জাহাঙ্গীর মোড়ল, বাবুল হাসান এবং ৭ নম্বর মামলায় ইলিয়াছ গাজী ও নাছির উদ্দিনকে আসামি করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow