Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ মার্চ, ২০১৭

প্রকাশ : বুধবার, ২০ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৯ জুলাই, ২০১৬ ২৩:২২
পাসপোর্ট পরিচালকসহ দুদকের অভিযানে গ্রেফতার ৮
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভুয়া অনাপত্তিপত্র প্রদান, জাল দলিল সৃজন, ভুয়া ঠিকানায় চাকরি, ভিজিএফ কার্ডের খাদ্য এবং ভুয়া ঋণের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ঢাকা, সিলেট, যশোর, ফরিদপুর ও লালমনিরহাট জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে পাসপোর্ট অধিদফতরের পরিচালক মুন্সি মুয়ীদ ইকরামসহ আটজনকে গ্রেফতার করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন—দুদক। দুদক জানায়, মিথ্যা ও ভুয়া তথ্য দিয়ে অফিশিয়াল পাসপোর্ট নিয়েছেন, এমন ২২টি পাসপোর্টের কাগজপত্রে প্রতিস্বাক্ষর করেছেন বহিরাগমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের পাঁচ কর্মকর্তা। তথ্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, সব কটি পাসপোর্টের অনাপত্তিপত্র জাল ও ভুয়া। বিষয়টি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে নিশ্চিত করেছেন দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য। গ্রেফতার অন্যরা হলেন— সিলেটের মো. আরিফুর রহমান। তাকে ভুয়া  ঠিকানা দিয়ে চাকরি গ্রহণ করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। একই জেলার ডিড রাইটার মো. বাহার উদ্দিনকে জমির ভুয়া শ্রেণিবিন্যাস করে ৬ লাখ ৯৫ হাজার ৫১০ টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। এ ছাড়া ভিজিএফ কার্ডের খাদ্য আত্মসাতের অভিযোগে যশোরের মনিরামপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মো. মোবারক আলী খাঁকে গ্রেফতার করা হয়। একই অভিযোগে মনিরামপুরের কানুনগো মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করে দুদক। তার বিরুদ্ধে জমির শ্রেণি পরিবর্তন মিউটেশন করার অভিযোগ রয়েছে। লালমনিরহাটের কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক কর্মকর্তা মো. হাসান আলীকে অর্থ আত্মসাতের মামলায় গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারের তালিকায় আরও রয়েছেন মো. আকরাম হোসেন ও আবদুর রাজ্জাক। দুদক জানায়, যেসব মন্ত্রণালয়, অধিদফতর ও বিভাগের কর্মকর্তাদের নামে এই অফিশিয়াল পাসপোর্ট ইস্যু করা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে গিয়ে ওই নামের কোনো কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি। আবেদনপত্রগুলোর হাতের লেখা একই রকম। অনাপত্তিপত্রে সংশ্লিষ্ট অফিসের সিলমোহর নেই। আবেদনপত্রে যে নাম ও ঠিকানা দেওয়া হয়েছে, সেগুলো ভুয়া। কয়েকটি ঠিকানায় যোগাযোগ করে কাউকে পাওয়া যায়নি। আবেদনপত্রে উল্লেখ করা মুঠোফোনেও কাউকে পাওয়া যায়নি। কয়েকজনের ফোন বন্ধ পাওয়া গেছে। ওই ২২টি পাসপোর্টের নথিতে প্রতিস্বাক্ষর করেছেন বহির্গমন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের ঢাকার পরিচালক মুন্সী মুয়ীদ ইকরাম, সহকারী পরিচালক এস এম শাহজামান, উম্মে কুলসুম ও নাসরীন পারভীন এবং উপপরিচালক মো. ফজলুল হক।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow