Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ০০:০৪
ধর্মান্তরিত তিনজনের খোঁজে পরিবার
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে ধর্মান্তরিত হওয়া যুবক ঝুলন দেবনাথ ওরফে মুহাম্মদ ইব্রাহিম ও উজ্জ্বল কান্তি নাথ এবং মাদ্রাসা ছাত্র রাকিব হোসেনকে খুঁজছে তাদের পরিবার। তিনজনের বিষয়েই নগরীর পাহাড়তলী ও আকবার শাহ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে পরিবার। জানা গেছে, চট্টগ্রামে নিখোঁজ যুবক ঝুলন দেবনাথ নগরীর দক্ষিণ কাট্টলী পশ্চিম পাড়ার ও উজ্বল কান্তিনাথ লোহাগাড়া উপজেলার বড় হাতিয়া গ্রামের বাসিন্দা। প্রায় এক বছর আগে এরা ধর্মান্তরিত হন। গত ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে ঝুলন নিখোঁজ থাকলেও তার বাবা খগেন্দ্র দেবনাথ গত সোমবার পাহাড়তলী থানায় জিডি করেন। তিনি জানান, দেশবিরোধী   কোনো কাজে ঝুলন জড়িত হলে সে জন্য পরিবার দায়ী থাকবে না। জিডিতে খগেন্দ্র দেবনাথ উল্লেখ করেন, দীর্ঘদিন প্রবাসে থাকা ঝুলন ২০১৩ সালে পারিবারিকভাবে পার্বতী দেবী নামে এক মেয়েকে বিয়ে করেন। এরপর তিনি আবার বিদেশে যান এবং পুনরায় ফিরে আসেন। গত বছর ২৭ মার্চ ঝুলন-পার্বতী দম্পতির একটি মেয়ে হয়। কিছুদিন পর দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হলে পার্বতী বাবার বাড়ি চলে যান। পরে গত বছরের ২৫ মে ঝুলনের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা হলে ৩০ জুলাই পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে এবং ১২ আগস্ট তিনি জামিনে ছাড়া পান। খগেন্দ্র জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে বিষয়টি নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করা হলেও ঝুলন রাজি না হয়ে ৩০ সেপ্টেম্বর বাড়ি ছেড়ে চলে যায়। তখন থেকে তাদের সঙ্গে ঝুলনের কোনো যোগাযোগ নেই। এ অবস্থায় গত বছরের ৫ নভেম্বর স্থানীয় একটি দৈনিকে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে খগেন্দ্র জানতে পারেন, তার ছেলে ঝুলন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। এরপর পরিবারের পক্ষ থেকে ঝুলনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়নি। ওই বিজ্ঞপ্তিতে ঝুলন উল্লেখ করেন, তিনি স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে ২ নভেম্বর নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে ধর্মান্তরিত হয়ে নাম রেখেছেন মুহাম্মদ ইব্রাহিম। খগেন্দ্র জানান, তারপর থেকে তার আর কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে না। একইভাবে সেলুন মালিক উজ্জ্বল কান্তি নাথ এক বছরের বেশি সময় নিখোঁজ বলে জানিয়েছে তার পরিবার। আকবর শাহ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, গত বছরের ১০ জুন উজ্জ্বল নিখোঁজ হন বলে তার বড় ভাই কাজল জিডি করেন। থানা এলাকায় উজ্জ্বলের সেলুন আছে। ভাই কাজল কান্তি নাথ জানান, আকবর শাহ থানার বিশ্বব্যাংক কলোনির বি-ব্লক ও মসজিদ এলাকা এবং ফিরোজশাহ কলোনি এলাকায় উজ্জ্বলের তিনটি সেলুন আছে। তিনি গত বছরের জুনে দোকান থেকে কিছু সময়ের কথা বলে বেরিয়ে আর ফেরেননি। অনেক খুঁজেও উজ্জ্বলকে না পেয়ে ১০ জুন জিডি করেন। তার আগে উজ্জ্বল ধর্মান্তরিত হন। এ ছাড়া নিখোঁজ মাদ্রাসা ছাত্র রাকিব হোসেন সম্পর্কে তার মা হাসিনা আক্তার জানিয়েছেন, তার একমাত্র সন্তান রাকিব নগরীর নিউ মনসুরাবাদ এলাকার শামসুল হক কারি মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্র ছিল। গত এপ্রিল মাসের প্রথম থেকে সে নিখোঁজ। তার বিষয়ে গত ২২ এপ্রিল আকবর শাহ থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়। রাকিব মাদ্রাসায় আবাসিক ছাত্র হিসেবে থাকত। তিন মাস আগে মাদ্রাসা থেকে জানানো হয়, রাকিবকে পাওয়া যাচ্ছে না। আকবর শাহ থানার এসআই আনোয়ার হোসেন জানান, রাকিব আগেও কয়েকবার পালিয়েছে। সর্বশেষ পালিয়ে যাওয়ার পর তার মা জিডি করেছেন। তাকে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow