Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ২৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৩ জুলাই, ২০১৬ ২৩:২৭
জঙ্গি শফিউলের আশ্রয়দাতা মাদ্রাসা শিক্ষক আটক
নিজস্ব প্রতিবেদক রংপুর ও গাইবান্ধা

কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ-সংলগ্ন এলাকায় জঙ্গি হামলায় জড়িত তরিকুল ইসলাম ওরফে শফিউল ইসলামের (২২) আশ্রয়দাতা গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের পান্থপাড়ার মাদ্রাসা শিক্ষক আনোয়ার হোসেনকে (৪৮) আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে র‌্যাব। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল তাকে গোবিন্দগঞ্জ থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এর আগে র‌্যাব-১৩ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের পান্থপাড়া এলাকা থেকে গতকাল ভোররাতে তাকে আটক করেন। আটক আনোয়ার হোসেন গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের পান্থপাড়ার মৃত হাকিম উদ্দিনের ছেলে। তিনি গোবিন্দগঞ্জের খলসী ইবতেদায়ি মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক। র‌্যাব-১৩ গাইবান্ধা ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক (অতিরিক্ত পুলিশ সুপার) মো. নাঈমুল হাছান জানান, তরিকুল ইসলাম ওরফে শফিউল ইসলাম ওরফে সাইফুল ইসলাম কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়া ঈদগাহ-সংলগ্ন সবুজবাগ এলাকায় জঙ্গি হামলা, গোবিন্দগঞ্জের ব্যবসায়ী অরুণ দত্ত হত্যা ও জুতা ব্যবসায়ী দেবেশ চন্দ্র হত্যা এবং পঞ্চগড়ে মন্দিরের পুরোহিত হত্যায় অংশ নেয়। শোলাকিয়া ঈদগাহ-সংলগ্ন সবুজবাগ এলাকায় হামলার পর পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। তিনি জানান, গ্রেফতারের পর শফিউল ইসলাম পুলিশের কাছে চার হত্যার তথ্য জানায়। শফিউল গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের পান্থপাড়ার মাদ্রাসা শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের বাড়িতে চার মাস ভাড়া ছিল। এ বাসায় ভাড়া থাকার সময় শফিকুল চার হত্যার কিলিং মিশনে অংশ নেয়। এ ছাড়া ওই বাড়িতেই জঙ্গিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হতো।

শফিকুলের তথ্যের ভিত্তিতেই আশ্রয়দাতা হিসেবে আনোয়ারকে আটক করা হয়েছে। গ্রেফতার শফিকুলকে মাদ্রাসা শিক্ষক আনোয়ার হোসেনের মুখোমুখি করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। এ জিজ্ঞাসাবাদের ফলে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের বরেন্দ্র এলাকায় জঙ্গিদের প্রশিক্ষণসহ তাদের অবস্থান সম্পর্কে ব্যাপক তথ্য উদ্ধার করা সম্ভব হবে বলেও তিনি জানান। গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক জানান, আটক আনোয়ার হোসেনকে থানা হাজতে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে হাজির করা হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow