Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৭
অবৈধ সম্পদ অর্জন
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব গ্রেফতার
নিজস্ব প্রতিবেদক

জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও অর্থ আত্মসাতের দুই মামলায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের উপসচিব ড. আমিন ও পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা পরিষদের প্রকৌশলী  মোহাম্মদ মজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করেছে দুদক। গতকাল দুপুরে রাজধানীর মগবাজার এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, ৪৮ লাখ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ড. আমিনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে নামে-বেনামে কয়েক কোটি টাকার সম্পদ থাকারও তথ্য রয়েছে। এ ছাড়া অর্থ আত্মসাতের মামলায় পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলা পরিষদের উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ মজিবুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুদকের উপ-পরিচালক জুলফিকার আলীর নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি টিম তাকে গ্রেফতার করে। মজিবুর রহমান অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের সহকারী প্রকৌশলী থাকার সময় রাজধানীর সুইপার কলোনি নির্মাণ প্রকল্পের প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। দুদক সূত্র জানায়, গত ১৩ জুন রাজধানীর গেন্ডারিয়া থানায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মেজবাহুল করিম ও সহকারী মজিবুর রহমানসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক। মামলা দায়েরের দিন মেজবাহুল করিমকে গ্রেফতার করা হয়। মামলার অন্য আসামিরা হলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সহকারী প্রকৌশলী নির্মল চন্দ্র দে ও নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আবুল অ্যান্ড ব্রাদার্সের মালিক মো. আবুল হোসেন চৌধুরী। মামলার এজাহার অনুযায়ী, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকার সুইপার কলোনি নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পে দয়াগঞ্জ সুইপার কলোনি গ্রুপ-‘খ’ এর নির্মাণ কাজে ক্ষমতার অপব্যবহার, অনিয়ম ও দুর্নীতির মাধ্যমে ১ কোটি ৪২ লাখ ৪২ হাজার ১০ টাকা আত্মসাৎ করেন।

up-arrow