Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৫
পুলিশের গুলিতে ‘ছিনতাইকারী’ নিহত
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকায় পুলিশের গুলিতে সন্দেহভাজন এক ছিনতাইকারী নিহত হয়েছে। একইসঙ্গে গুলিবিদ্ধ আরও এক ছিনতাইকারীসহ দুজনকে গ্রেফতার করেছে শাহবাগ থানা পুলিশ।

গতকাল সকালে ধানমন্ডির ৩ নম্বর রোডে এই ঘটনা ঘটে। ছিনতাই চক্রের মূল হোতা সোহরাবকে ধরতেও অভিযানে নেমেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, গতকাল ভোর ৬টার দিকে পল্টন এলাকায় একটি সাদা রঙের টয়োটা গাড়ির গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে তা থামানোর সংকেত দেয় পুলিশ। কিন্তু চালক গাড়ি না থামিয়ে দ্রুত পালানোর চেষ্টা করে। সঙ্গে টহল পুলিশও গাড়ির পিছু নেয়। পরে গাড়িটি ধানমন্ডির বিভিন্ন ওলি-গলি পেরিয়ে ৩ নম্বর রোডে পৌঁছলে পুলিশ তা আটকে দেয়। এ সময় গাড়ির ভিতরে থাকা লোকজন নেমে দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করে। এ সময় তাদের থামাতে পুলিশ গুলি করে। এ ঘটনায় সাগর ও হযরত আলী নামে দুজন গুলিবিদ্ধ হয়। আর গাড়ির চালক আবুল বাশারকে আটক করা হয়। পরে গুলিবিদ্ধদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে  নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাগরকে মৃত ঘোষণা করেন। আটক বাশারের নামে আগেও শাহবাগ থানায় মামলা ছিল। যে গাড়িটিতে ছিনতাইকারীরা ছিল সেই মালিকের দুটি গাড়ি আছে। মালিকের নাম সোহরাব। তার বাড়ি গাজীপুরে। সোহরাবও ছিনতাই চক্রের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত। তাকে ধরতে গতকাল বিকালেই অভিযানে যায় পুলিশ। এ বিষয়ে রমনা বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার বলেন, ওই গাড়িটিতে করে চক্রটি ছিনতাই করছিল সন্দেহ করে পুলিশ তাদের ধাওয়া করে। পরে ধানমন্ডিতে তাদের গাড়ির গতিরোধ করা হলেও তারা তা ধাক্কা দিয়ে পালাতে চায়। এ সময় বাধ্য হয়ে পুলিশ গুলি ছুরে। ছিনতাইয়ের আলামত হিসেবে  ইডেন কলেজের এক ছাত্রীর ব্যাগ পাওয়া গেছে। চারটি মোবাইল ফোন এবং ছুরি-চাপাতির মতো ধারালো অস্ত্র পাওয়া গেছে বলেও জানান তিনি।

up-arrow