Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২১
ঈদ শুরুর আগেই ভয়াবহ যানজট
ভোগান্তির শেষ নেই
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঈদুল আজহার বাড়তি চাপে প্রচণ্ড যানজট ছিল ঢাকায়। গতকাল রাজধানী জুড়েই ছিল গাড়ির তীব্র জট।

ফলে মানুষের পড়তে হয়েছে ভোগান্তিতে। সকাল থেকেই গাড়ির চাপ বাড়তে থাকে রাজপথে। বেলা ১১টার পর থেকেই বিভিন্ন পয়েন্টে যানজটের সৃষ্টি হয়। তীব্র যানজটে জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়ে। মূল সড়ক থেকে শুরু করে বিভিন্ন অলিগলিতে ছিল বিভিন্ন ধরনের যানবাহনের দীর্ঘ সারি। দুপুর ১২টার পর থেকে শাহবাগ, জাতীয় প্রেসক্লাব, পল্টন, মতিঝিল, গুলিস্তান, নিউমার্কেট, বাংলামোটর, ফার্মগেট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা, কাকরাইলসহ মধ্য ঢাকা ছিল একেবারে স্থবির। পুলিশ এ যানজটে হাল ছেড়ে দেয়। উল্টোপথে চলতে গিয়ে রিকশার সঙ্গে যান্ত্রিক যানবাহনের জগাখিচুড়ি অবস্থার সৃষ্টি হয়। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, মহাখালী এলাকা, বিজয় সরণি, ফার্মগেট, কারওয়ান বাজার, কাকরাইল, বিজয় নগর, গুলিস্তান— প্রতিটি এলাকায় যানজটে আটকে থাকতে হয়েছে ঘণ্টার পর ঘণ্টা। মহাখালী উড়াল সড়কের ওপরেও বিভিন্ন যানবাহন দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। মতিঝিল শাপলা চত্বরের চারদিকেই বাস, প্রাইভেটকার, রিকশার তীব্র জট। সকাল থেকেই পুরো এলাকা জুড়ে ছিল এই চিত্র। মত্স্যভবন মোড়, কাকরাইল মোড় এবং সেগুনবাগিচা এলাকায় বিক্ষিপ্ত যানবাহনের সারি পরিস্থিতিকে আরও জটিল করে তোলে। অবস্থা এমন পর্যায়ে দাঁড়ায় ফুটপাথ দিয়ে হাঁটাও দায় হয়ে পড়ে। রাজধানীর পলাশী মোড় থেকে চানখাঁরপুল পর্যন্ত একটি বিকল্প লেনে কিছু গাড়ি মেয়র হানিফ ফ্লাইওভার দিয়ে যাত্রাবাড়ী পর্যন্ত পারাপারের চেষ্টা করে। যানজটে পড়ে বাসে যাতায়াতকারী লোকজন নেমেই হাঁটা শুরু করেন। অনেকে কয়েক ঘণ্টা হাঁটার পর নিজ নিজ গন্তব্যে পৌঁছান। রিকশা বা অন্য কোনো যানবাহন না পেয়ে তাদেরকে হেঁটেই গন্তব্যে পৌঁছতে হয়েছে। বিকালে মতিঝিলের অফিস ফেরত লোকজনেরও যানজটে একই ধরনের বিড়ম্বনায় পড়তে হয়েছে। মালিবাগ মোড় থেকে নতুনবাজার পর্যন্ত আধা ঘণ্টার পথে গাড়ি পাড় হতে সময় লেগেছে কয়েক ঘণ্টা। বিরক্ত হয়ে অনেকে রাস্তায় নেমে হেঁটে গেলেও রিকশা, মোটরসাইকেল ফুটপাথে ওঠায় তাও পারেননি। বৃদ্ধ, মহিলারা বাসের মধ্যে কাটিয়ে দিয়েছেন ঘণ্টার পর ঘণ্টা। মহাখালী থেকে বনানী পর্যন্ত পুরো রাস্তা ছিল বিভিন্ন যানবাহনের দখলে। এখানে তিন কিলোমিটার পথ পার হতে সময় লেগেছে তিন ঘণ্টা। উল্টো দিকে ছিল একই চিত্র। মহাখালী আন্তঃজেলা বাসস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার বাসের চাপে এসব সড়কে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। সারা দিনের পর রাত ১২টায় ঢাকার যানজটের কোনো উন্নতি দেখা যায়নি। যেসব যাত্রী গ্রামে যেতে রাতের বাসে উঠেছেন ঢাকা থেকে বের হতেই তাদের সময় লেগেছে কয়েক ঘণ্টা।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow