Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:০৩
সাফল্য
‘ঘাতক ব্যাকটেরিয়া’ শনাক্ত করলেন দেশের গবেষকরা
মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় ও বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের (বিএআরআই) একদল বিজ্ঞানী তাদের যৌথ গবেষণায় লেবুজাতীয় ফসল মাল্টা ও কমলার  গ্রিনিং রোগের ব্যাকটেরিয়া শনাক্ত করেছেন। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ রোগতত্ত্ব বিভাগের প্রফেসর ড. মো. রসিদুল ইসলামের নেতৃত্বে গবেষক দল ছয়মাস গবেষণা করে মাল্টা ও কমলাতে গ্রিনিং রোগের ব্যাকটেরিয়া শনাক্ত করেন। এই রোগের কারণেই চারা গাছ কম বাড়ে, ফসল কম হয় এবং কলম গাছ মাথা থেকে মরে যায়। সূত্র জানায়, গবেষক দল তাদের গবেষণার ফলাফল জীন সিকোয়েনসিং-এর মাধ্যমে নিশ্চিত হন এবং সিকোয়েন্স ডাটা জিন ব্যাংকে সংরক্ষণের জন্য জমা দেন। তারা তাদের গবেষণায় বাংলাদেশে Asian Citrus Psyllid Bug এর উপস্থিতিও নিশ্চিত করেন। যদিও বাংলাদেশে ১৯৭৮ সালে FAO Bulletin কর্তৃক গ্রিনিংয়ের উপস্থিতি সম্পর্কে আনুবীক্ষণিক অনুসন্ধানের মাধ্যমে অনুমান করা হয়। বিএআরআইএর উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ও সাইট্রাস উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক ড. আজমত উল্লাহ জানান, তিনি ২০ বছরেরও অধিক সময় ধরে লেবু জাতীয় ফলের ওপর গবেষণা করে আসছেন। গবেষণার এই সাফল্য মালটা ও কমলার সুস্থ চারা উৎপাদন ও চাষের প্রসারে ভূমিকা রাখবে। গবেষক দলের প্রধান প্রফেসর ড. মো. রসিদুল ইসলাম বলেন, গ্রিনিংয়ের কারণ ও ব্যবস্থাপনা নিয়ে আরও গবেষণা প্রয়োজন। যা লেবু জাতীয় ফলের রোগ দমনে কার্যকরী ভূমিকা রাখবে। বলাবাহুল্য বিজ্ঞানী দলের এ রোগের কারণ শনাক্তকরণ লেবুজাতীয় ফলের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণে বিশেষ ভূমিকা পালন করবে। এ প্রকল্পের এম এস ফেলো মোহাম্মদ মনিরুল হাসান টিপু বলেন, এ ধরনের গবেষণা সাফল্য উচ্চতর ডিগ্রি ও গবেষণায় উৎসাহিত করবে।  সূত্রমতে, রোগ শনাক্তের মাধ্যমে মাল্টা ও কমলার পর্যাপ্ত উৎপাদন করা গেলে ফল কিনতে বিদেশিদের টাকা দিতে হবে না। বাংলাদেশের মানুষ দেশের ফলই নিরাপদে খেতে পারবেন।

up-arrow