Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪৮
হাওরে রাত জাগা জোছনা উৎসব
সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি
হাওরে রাত জাগা জোছনা উৎসব

টাঙ্গুয়ার হাওরে ব্যতিক্রমী জোছনা উৎসবের আয়োজন করেছিল তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ ও উপজেলা প্রশাসন। গত শুক্রবার থেকে দুই দিনের এই উৎসবে রাতভর শামিল ছিলেন হাজার হাজার নারী-পুরুষসহ আবালবৃদ্ধবনিতা।

তারা স্নান করে, নেচে-গেয়ে এবং নানা অনুষ্ঠানে মাতোয়ারা হয়ে এ উৎসব পালন করেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, যে হাওরের শান্ত শীতল জলে স্নান করে শুধুই শরীর জুড়ানোর কথা, সেখানে রাতভর গানে গানে এত মানুষের উৎসব দেখে স্থানীয়রা হয়েছেন অবাক। হাওরের অপূর্ব নৈসর্গিক সৌন্দর্যে এ ছিল কল্পনাতীত ঘটনা। রাতভর মাঝ হাওরে ভাসমান মঞ্চে ব্যতিক্রমী এ উৎসব তাই পর্যটক ও স্থানীয় মানুষজনকে মুগ্ধ করে। আয়োজকরা জানান, দেশের উত্তর-পূর্ব প্রান্তের সীমান্তবর্তী জেলা সুনামগঞ্জ পরিচিত হাওর-বাঁওড়ের রাজধানী হিসেবে। আর এসব হাওর-বাঁওড়ের মধ্যে জীববৈচিত্র্যের দিক থেকে টাঙ্গুয়ার হাওরের রয়েছে অনন্য বৈশিষ্ট্য। মাছ, অতিথি পাখি আর সোয়াম ফরেস্টের জন্য বিখ্যাত এ হাওরের সৌন্দর্য ভ্রমণপিয়াসুদের হাতছানি দিয়ে ডাকলেও প্রচার-প্রচারণা আর ব্যবস্থাপনার অভাবে এতদিন পর্যটকদের তেমন একটা নজর কাড়তে পারেনি। তাহিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান কামরুল জানান, টাঙ্গুয়ার হাওরের পর্যটন সম্ভাবনা এবং হাওরে জীববৈচিত্র্য পর্যটকদের সম্মুখে তুলে ধরতেই এ জোছনা উৎসবের আয়োজন করা হয়। উৎসবে অংশগ্রহণ করা অনেকেই জানান, শুরুতে নৌ শোভাযাত্রা করে হাওরের নৈসর্গিক সৌন্দর্য উপভোগ করেন হাজারো পর্যটক। সুনসান রাতে হাওরের মধ্যখানে স্থাপিত ভাসমান মঞ্চে সারারাত চলে নাচ ও গান। মঞ্চের চারপাশে ছোটবড় নৌকায় বসে দর্শক-শ্রোতারা সুরের মূর্ছনায় হারিয়ে যান। পরে নৌকার ছাদে বসে জোছনা উপভোগ করেন সবাই। আর এইসঙ্গে চলে জোছনা স্নান। এ উৎসবে বিশিষ্টদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোয়াজ্জেম হোসেন রতন এমপি, শামসুন্নাহার বেগম শাহানা এমপি, সাবেক এমপি নজির হোসেন, পুলিশ সুপার হারুন অর রশিদ, বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুনুর রশীদ, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি আবুল হোসেন খান, ইউপি চেয়ারম্যান বুরহান উদ্দিন, খসরুল আলম প্রমুখ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow