Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫১
অপহরণকারী হিসেবে আটক, নিহত ‘বন্দুকযুদ্ধে’
নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর

রংপুরে এক অপহরণকারী পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন। গতকাল ভোরে পীরগঞ্জ উপজেলার চণ্ডীপুর এলাকায় ত্রিমোহনী সেতুর কাছে গোলাগুলির এ ঘটনায় নিহত হুমায়ুন কবীর (৩০) বরিশাল সদর উপজেলার আবদুস সাত্তারের ছেলে। সোমবার বিকালে পীরগঞ্জ থেকে ১১ লাখ টাকাসহ হাফিজুর রহমান নামে এক ব্যবসায়ী অপহৃত হন। পরে তাকে উদ্ধারের পাশাপাশি টাকাসহ পাঁচ অপহরণকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। হুমায়ুন কবীর তাদেরই একজন। পীরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে হুমায়ুনকে সঙ্গে নিয়ে সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে চণ্ডীপুর এলাকায় অস্ত্র উদ্ধার অভিযানে যায় পুলিশ। ত্রিমোহনী সেতুর কাছে পৌঁছলে সেখানে তার সহযোগীরা পুলিশকে গুলি করলে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে হুমায়ুনের মাথায় গুলি লাগে। পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় পুলিশের এএসআই নাজিবুল ও কনস্টেবল মিজু ও মান্নান আহত হন বলে জানান তিনি। পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক কামাল পাশা জানান, হুমায়ুনের মাথার পেছনে ডান দিক দিয়ে গুলি ঢুকে সামনে দিয়ে বেরিয়ে গেছে। হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়।

প্রসঙ্গত, সোমবার বেলা ৩টায় ইসলামী ব্যাংক পীরগঞ্জ শাখা থেকে ১৩ লাখ টাকা তোলেন পাট ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান। দুই লাখ টাকা অন্য এক ব্যবসায়ীকে দিয়ে বাকি টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে করে উপজেলার ছোট উজিরপুরে বাড়ি ফিরছিলেন তিনি। পীরগঞ্জ পৌর এলাকার চওড়ারহাট এলাকায় পৌঁছালে একটি সাদা মাইক্রোবাসে করে এসে একদল লোক তাকে তুলে নিয়ে যায়। এরপর শাল্টিগোপালপুর এলাকায় একটি রিকশার সঙ্গে মাইক্রোবাসটির ধাক্কা লাগলে স্থানীয়রা এগিয়ে আসে।  

এই পাতার আরো খবর
up-arrow