Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৫৬
তৃণমূলের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হবে নেতৃত্ব
চট্টগ্রাম নগর বিএনপিতে নয়া চিন্তাভাবনা
ফারুক তাহের, চট্টগ্রাম
তৃণমূলের সরাসরি ভোটে নির্বাচিত হবে নেতৃত্ব

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপিকে তৃণমূল পর্যায় থেকে শক্তিশালী করতে নতুন পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নামতে যাচ্ছে নবনির্বাচিত কমিটি। নগরীর ৪১টি ওয়ার্ডে সদস্য সংগ্রহ অভিযান শেষে ওয়ার্ড কমিটি গঠনের উদ্যোগই হবে এ পরিকল্পনার প্রথম ধাপ।

রাজপথের আন্দোলন সফল করতে এবং দলীয় নেতা-কর্মীদের সংগঠন ও কর্মসূচিমুখী করতে এর কোনো বিকল্প নেই বলে মনে করেন নগর বিএনপি সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর। তাই নগর বিএনপি শিগগির পরিকল্পিত উপায়ে মাসব্যাপী সদস্য সংগ্রহের কাজ শুরু করতে যাচ্ছে। চট্টগ্রামের এই পরিকল্পনা পর্যায়ক্রমে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার কথা জানান ডা. শাহাদাত। নগর নেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডে নির্ধারিত হারে সদস্য ফরম বিক্রি ও ছবি সংবলিত সদস্য ফরম পূরণের মধ্য দিয়ে বিএনপির আদর্শে বিশ্বাসী যে কোনো প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিককে সদস্য করা হবে। সংগৃহীত সাধারণ সদস্যদের মধ্য থেকে সভাপতি, সিনিয়র সহসভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, কোষাধ্যক্ষ, সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ১১ সদস্য বিশিষ্ট ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা হবে। এ ক্ষেত্রে সরাসরি নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় তৃণমূল পর্যায়ে নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে।

নগর বিএনপি সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন        বলেন, সদস্য সংগ্রহ ও নির্বাচনের মধ্য দিয়ে ওয়ার্ড কমিটি গঠন করা হলে তৃণমূল থেকে সংগঠন শক্ত অবস্থানে দাঁড়াবে। এ প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হলে ভবিষ্যতে যে কোনো সভা-সমাবেশ ও আন্দোলন কর্মসূচিতে স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ দেখা দেবে। এর ব্যত্যয় ঘটলে ওয়ার্ড নেতাদের কাছ থেকে জবাবদিহি চাওয়া হবে। নির্বাচনের মধ্য দিয়ে নেতৃত্ব নির্ধারণ হলে ওয়ার্ড পর্যায়ে দলীয় কোন্দল কমে দায়বদ্ধতা বৃদ্ধি পাবে—জানিয়ে নগর বিএনপির তরুণ এই সভাপতি আরও বলেন, সদস্য সংগ্রহ ও নির্বাচনের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্ধারণের এ প্রক্রিয়ায় চট্টগ্রামে সফলতা এলে সারা দেশে অনুকরণ করা হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া। এদিকে নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, প্রতিটি সদস্য তাদের নিজস্ব পরিচিতি পাবে ফরম পূরণের মাধ্যমে। এতে তাদের মনোবল বৃদ্ধি পাবে। এভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে নেতৃত্ব উঠে আসলে সংগঠনের ভিত শক্ত হবে। এতে আগামীর যে কোনো কর্মসূচি অতীতের তুলনায় সফল হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow