Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • এমপি বদিসহ মাদকের সাথে যেই জড়িত থাক না কেন সবাইকে আইনের আওতায় আনা হবে: ওবায়দুল কাদের
  • ঈদে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু ১ জুন
  • প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক ; এবার ভেনেজুয়েলার দুই কূটনীতিককে বহিষ্কার করল যুক্তরাষ্ট্র
  • পৃথিবীর হয়ে যুক্তরাষ্ট্র সিদ্ধান্ত নেবে না, রুহানির হুঙ্কার
  • ডিএসসিসির নির্দেশনা উপেক্ষা করে বেশি দামে মাংস বিক্রির অভিযোগ
  • তালিকা অনুযায়ী সব মাদক ব্যবসায়ীকে আইনের আওতায় আনা হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • মাদকবিরোধী অভিযানে পাঁচ জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ৮ মাদক ব্যবসায়ী নিহত
প্রকাশ : শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৪
সম্মেলনে সরকারের সব অর্জন তুলে ধরা হবে : গণপূর্তমন্ত্রী
নিজস্ব প্রতিবেদক
সম্মেলনে সরকারের সব অর্জন তুলে ধরা হবে : গণপূর্তমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের আসন্ন ২০তম জাতীয় কাউন্সিলের স্থান সোহরাওয়ার্দী উদ্যান গতকাল পরিদর্শনে যান দলের সিনিয়র নেতারা —বাংলাদেশ প্রতিদিন

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের মাধ্যমে বর্তমান সরকারের অর্জনগুলো জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তা অব্যাহত থাকলে নির্দিষ্ট সময়ের আগেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে। গতকাল বিকালে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনস্থল পরিদর্শন শেষে এ কথা বলেন তিনি। এ সময় মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপকমিটির আহ্বায়ক এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, সদস্যসচিব এবং বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা পংকজ দেবনাথ এমপি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা সুজিত রায় নন্দী, ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইসাহাক আলী খান পান্না, সাবেক সভাপতি বাহাদুর বেপারী, লিয়াকত শিকদার, মাহমুদ হাসান রিপন, সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ১২৯ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছে উল্লেখ করে বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতি মুছে ফেলার জন্য বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান এখানে শিশু পার্ক স্থাপন করেছিলেন। তিনি বলেন, এ ঐতিহাসিক উদ্যানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ তার ঐতিহাসিক ভাষণ দিয়েছিলেন এবং পাক হানাদার বাহিনীর সেনারা এখানেই আত্মসমর্পণ করেছিল। এর আগে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ সম্মেলনস্থল ঘুরে দেখেন। প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম তাকে মঞ্চ ও সাজসজ্জা সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় অবহিত করেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow