Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:২১
আরও ৩৮ মিলিয়ন ডলার ফেরতের অপেক্ষায়
রিজার্ভ চুরি
নিজস্ব প্রতিবেদক

ফিলিপাইনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত জন গোমেজ বলেছেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের চুরি হওয়া রিজার্ভের আরও ৩৮ দশমিক ৩ মিলিয়ন ডলার ফেরত দ্রুত পাওয়া যাবে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ২৯৫ কোটি টাকা।

যা ফিলিপাইন আদালতের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। ইতিমধ্যে বিচার বিভাগ ১৫ মিলিয়ন ডলার ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। আগামী নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে বাংলাদেশের একটি প্রতিনিধি দল এ অর্থ রিসিভ করতে ফিলিপাইন আসবেন। গতকাল ফিলিপাইনের দৈনিক ইনকোয়ারার পত্রিকায় দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন। জন গোমেজ বলেন, রিজার্ভ চুরির ঘটনা তদন্ত ও বাংলাদেশকে ফেরত দেওয়ার বিষয়ে ফিলিপাইন সরকারকে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ। একই সঙ্গে ইনকোয়ার পত্রিকা এ ঘটনা তুলে ধরে যেভাবে ভূমিকা রেখেছে তার জন্য আমরা কৃতজ্ঞ। উদ্ধার করা ১৫ মিলিয়ন ডলার ফেরতের বিষয়টি এখন চূড়ান্ত। ফিলিপাইনের অ্যাসিউজমেন্ট অ্যান্ড গেমিং করপোরেশনের কাছে ২.৩ মিলিয়ন, ইস্টার্ন হাওয়াই লেইসার কোম্পানির কাছে ৩৬ মিলিয়ন ডলার রয়েছে। ফিলিপাইন আদালতের অনুমোদনের অপেক্ষায় থাকা এই অর্থও দ্রুত উদ্ধার করা যাবে বলে আমরা আশা করি। ফিলিপাইন সরকার এ বিষয় খুবই আন্তরিক। ফিলিপাইন আদালতের নির্দেশে ফেরত পাওয়া ১৫ মিলিয়ন ডলার গ্রহণ করতে বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী, অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান, অ্যাটর্নি জেনারেল ও বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর আসবেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow