Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৪০
প্রকল্প সরিয়ে হতে পারে কুয়াকাটায়ও
——— শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন
প্রকল্প সরিয়ে হতে পারে কুয়াকাটায়ও

জীববৈচিত্র্য রক্ষায় সুন্দরবনের বিকল্প নেই। তবে সরকার চাইলে রামপাল প্রকল্পের জন্য বিকল্প অনেক জায়গা আছে বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগের সহযোগী  অধ্যাপক শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন।

তিনি বলেছেন, আমাদের সুন্দরবনও লাগবে, উন্নয়নও লাগবে। তাই সুন্দরবন এলাকায় রামপাল প্রকল্প বাস্তবায়ন না করে সরকার চাইলে কুয়াকাটা থেকে সেন্টমার্টিন পর্যন্ত যে কোনো জায়গায় তা করতে পারে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আলাপকালে শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন বলেন, সর্বশেষ জাতিসংঘের পরিবেশবিষয়ক সংস্থা ইউনেসকোও সুন্দরবনে রামপাল প্রকল্প নিয়ে তাদের গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এখন সরকারের উচিত হবে একগুঁয়েমি বাদ দিয়ে এ প্রকল্প বাতিল করা। বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের যে প্রতিষ্ঠানটি রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের চুক্তি করেছে, সেই একই কোম্পানি শ্রীলঙ্কাতেও আরেকটি এমন বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে চুক্তি করেছে। শ্রীলঙ্কার বিদ্যুৎকেন্দ্র নিয়ে বির্তক ওঠার পর ভারত সে চুক্তি বাতিল করেছে। তাহলে রামপাল চুক্তিও কেন বাতিল হবে না?

তিনি বলেন, কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র রামপাল হোক, আর অন্য যেখানেই হোক না কেন, এ ধরনের প্রকল্প করার আগে পরিবেশ অ্যাসেসমেন্ট লাগবে। সুন্দরবনের কাছে রামপাল প্রকল্প নিয়ে সরকার যে পরিবেশ অ্যাসেসমেন্ট করেছে, তা বির্তকিত। এর পরের কথা হলো, দেশে সুন্দরবনের বাইরেও অনেক জায়গা আছে। কিন্তু আরেকটা সুন্দরবন আমাদের নেই। আর জীববৈচিত্র্যের জন্য কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ক্ষতিকর। এ ছাড়া ঘূর্ণিঝড় প্রতিরোধে প্রাকৃতিক ঢাল হিসেবে কাজ করে সুন্দরবন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow