Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৫৬
গণভবনে মিলাদ বিশেষ মোনাজাত
জন্মদিনে শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা
নিজস্ব প্রতিবেদক

দরিদ্রদের মধ্যে খাবার বিতরণ, সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনায় মিলাদ মাহফিল ও বিশেষ মোনাজাতের মধ্য দিয়ে সাদামাটাভাবে পালিত হলো আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন। সব্যসাচী লেখক সৈয়দ শামসুল হকের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী তার ৭০তম জন্মদিন উদযাপনের জন্য আওয়ামী লীগ ও এর সহযোগী-ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনসমূহের গৃহীত কর্মসূচি স্থগিত করা হয়।

তাই কেক কাটা, আলোচনা সভা, শোভাযাত্রার কর্মসূচি এবার হয়নি। শেখ হাসিনার জন্ম ১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়। তিনি বর্তমানে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনে যোগদান শেষে ওয়াশিংটনে তার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়, মেয়ে সায়মা হোসেন, বোন শেখ রেহানাসহ ভাগ্নে-ভাগ্নি, নাতি-নাতনিদের সঙ্গে পারিবারিক সময় কাটাচ্ছেন।

গণভবনে মিলাদ ও দোয়া : বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ৭০তম জন্মদিন উপলক্ষে বাদ আসর গণভবনে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্বাস্থ্য কামনা করে মহান আল্লাহর কাছে মোনাজাত করা হয়। মাহফিলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ ১৫ আগস্ট শহীদদের আত্মার শান্তি কামনা করে দোয়া করা হয়। দোয়ায় জাতির অব্যাহত শান্তি, উন্নতি ও সমৃদ্ধির উত্তরোত্তর বৃদ্ধিও কামনা করা হয়। মিলাদ ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন সোবহানবাগ জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মোহাম্মদ লিয়াকত হোসেন। এতে বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, কেন্দ্রীয় নেতা আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী নাসিম, এস এম কামাল হোসেন, প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিব মেজর জেনারেল মিয়া মোহাম্মদ জয়নুল আবেদীনসহ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও গণভবনের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা এ মাহফিলে অংশ নেন।    

শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের বিভিন্ন মসজিদ, মন্দির ও প্যাগোডাসহ বিভিন্ন উপাসনালয়ে বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনা সভার আয়োজন করা হয়। দুপুরে সংগঠনের কার্যালয়ে ঢাকা মহানগর যুবলীগ দক্ষিণ শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা এবং সদ্য প্রয়াত সৈয়দ শামছুল হকের রুহের মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। মিলাদ শেষে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ দলীয় কার্যালয়, কাকরাইল মোড়, কমলাপুর রেল স্টেশন, সদরঘাট লঞ্চ টার্মিনাল, জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মোট পাঁচটি ট্রাকে করে ৫০ হাজার প্যাকেট মিষ্টি বিতরণ করা হয় দক্ষিণ যুবলীগ সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাটের পক্ষ থেকে। এ ছাড়া যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সম্পাদনায় প্রকাশিত ‘সমরেখায় রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনা’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মো. হারুনুর রশীদ, শহীদ সেরনিয়াবাত, মজিবুর রহমান চৌধুরী, মো. ফারুক হোসেন, মাহবুবুর রহমান হিরণ, আবদুস সাত্তার মাসুদ, আতাউর রহমান, দক্ষিণ সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল প্রমুখ। বাদ জোহর ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম মসজিদের দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশ নেন জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি মিয়া, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, কামাল চৌধুরী, হেদায়েতুল ইসলাম স্বপন, মিরাজ হোসেন প্রমুখ। রাতে দক্ষিণ মঈশিনন্দী বালিকা বিদ্যালয়ে দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশ নেন ওয়ারি থানা আওয়ামী লীগ সভাপতি চৌধুরী আশিকুর রহমান লাভলু, সম্পাদক হাজী আবুল হোসেন, কাউন্সিলর সরোয়ার হোসেন আলো, গোলাম রহমান প্রমুখ। ঢাকা মহানগর যুবলীগ উত্তরের উদ্যোগে সকাল ১০টায় ফার্মগেট আনন্দ সিনেমা হল সম্মুখে মিলাদ মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন উত্তরের সভাপতি মাইনুল হোসেন খান নিখিল, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, জাফর ইকবাল, আকতারুজ্জামান, মোস্তাফিজুর রহমান মাসুদ প্রমুখ। দুপুরে ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ প্রার্থনা সভা হয়। এতে অন্যান্যের মধ্যে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বীরেন সিকদার, আওয়ামী লীগ নেতা মুকুল বোস, অসীম কুমার উকিল, সুজিত রায় নন্দী, অপু উকিল, অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, নির্মল চ্যাটার্জিসহ কেন্দ্রীয় পূজা উদযাপন পরিষদ ও মহানগর পূজা উদযাপন পরিষদের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow