Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:৫৭
দুই জার্মান রিমান্ডে, আরেক জনকে খুঁজছে পুলিশ
নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে অস্ত্রসহ আটক বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জার্মানির দুই নাগরিক আনিসুল ইসলাম তালুকদার ও মো. মনির বেন আলীকে তিন দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। বিমানবন্দর থানা পুলিশ গতকাল ওই দুজনকে ঢাকার হাকিম আদালতে হাজির করে দশ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানালে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করা হয়। দুজনকেই বিমানবন্দর থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এদিকে এ ঘটনায় জড়িত রয়েছেন এমন আরও একজনকে পুলিশ খুঁজছে। বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নুরে আযম মিয়া জানান, বিদেশি মদ উদ্ধারের অভিযোগে দুজনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে। তারা যে ধরনের অস্ত্র এনেছে, সে বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। পাশাপাশি ব্যালাস্টিক পরীক্ষার জন্য সিআইডির কাছে উদ্ধার হওয়া অস্ত্রের নমুনা পাঠানো হয়েছে। খেলনা বন্দুকের ঘোষণা দিয়ে নয়টি অস্ত্রসহ শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমাবন্দর থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় মঙ্গলবার দুবাই হয়ে আসা ওই দুই ব্যক্তিকে আটক করে কাস্টমস কর্তৃপক্ষ। পরে তাদের বিমানবন্দর থানায় সোপর্দ করা হয়। পুলিশের একটি সূত্র জানায়, উদ্ধার করা ৯টি অস্ত্রের ব্যারেল ছিল খেলনা পিস্তলের। ব্যারেলগুলো ফেলে প্রকৃত অস্ত্রের ব্যারেল লাগালেই সেগুলোকে প্রাণঘাতী অস্ত্রে পরিণত করা যায়। কিন্তু আনিসুল ইসলাম তালুকদার ও মো. মনির বেন আলী এসব অস্ত্র খেলনা বলে ঘোষণা দিয়ে ঢাকায় নিয়ে আসে। এরা বিগত এক বছরে বেশ কয়েকবার ঢাকায় আসে। কী কারণে তাদের এই ঘনঘন ঢাকায় আসা-সে ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানায়, গোয়েন্দাদের কাছে খবর রয়েছে আনিসুল ইসলাম তালুকদার ও মনির বেন আলী ইতিপূর্বে একই কায়দায় ঢাকায় এ ধরনের অস্ত্র নিয়ে এসেছিল। জার্মানি থেকেই তারা এই অস্ত্রগুলো সংগ্রহ করে। এই দুজন বাদেও গোয়েন্দারা আরও একজনের নাম জানতে পেরেছে। তিনিও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন জার্মান। বাংলাদেশ ও জার্মানি আসা যাওয়ার মধ্যেই তিনি রয়েছেন। তার ব্যাপারেও খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। সূত্র জানায়, বায়তুল মোকাররমের বৈধ অস্ত্র ব্যবসার যে প্রতিষ্ঠানের নামে অস্ত্রগুলো এসেছে, সেই প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারেও তদন্ত শুরু হয়েছে। গোয়েন্দা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, ঢাকায় আফগানিস্তানের সঙ্গে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ম্যাচ চলছে। কদিনের মধ্যে আসছে ইংল্যান্ড দল। এ সময় কোনো ধরনের নাশকতার জন্য অস্ত্রগুলো আনা হয়েছিল কিনা, তা তদন্তের আওতায় নেওয়া হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow