Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১৪
প্রকৃতি
চিড়িয়াখানায় জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি
মোস্তফা কাজল
চিড়িয়াখানায় জেব্রা পরিবারে নতুন অতিথি

মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানায় বিশালদেহী জেব্রা কুইন পরিবারে এসেছে নতুন অতিথি। রবিবার রাতে স্ত্রী জেব্রা কুইনের গর্ভে জন্ম নেয় তরতাজা ফুটফুটে একটি বাচ্চা।

পাঁচ বছর বয়সী মা জেব্রার জন্ম হয়েছিল কেনিয়ায়। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে দুই বছর বয়সী জেব্রাটি কেনিয়া থেকে কেনা হয়েছিল। এই প্রাণীর গড় আয়ুষ্কাল ২০ থেকে ২৫ বছর। কিন্তু আবদ্ধ অবস্থায় খাঁচায় বা বেষ্টনীতে ১৬ থেকে ১৮ বছর বেঁচে থাকে। চিড়িয়াখানার কিউরেটর ডা. এস এম নজরুল ইসলাম বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, জেব্রা পরিবারে গত রবিবার রাতে নতুন অতিথির জন্ম হয়েছে। দু-একদিনের মধ্যে নাম দেওয়া হতে পারে। এ জন্য প্রিন্সেস নাম দিয়ে একটি প্রস্তাব প্রাণিসম্পদ অধিদফতরে পাঠানো হয়েছে। আবদ্ধ অবস্থায় এসব বন্যপ্রাণী বাচ্চা জন্ম দিতে চায় না। কিন্তু ঢাকা চিড়িয়াখানায় এমন ধরনের প্রাণী বাচ্চা জন্ম দেওয়ায় নতুন ইতিহাসের জন্ম দিল জেব্রা। বর্তমানে একটি জেব্রার আন্তর্জাতিক বাজার মূল্য প্রায় ২৫ লাখ টাকা। চিড়িয়াখানায় নতুন অতিথি আগমনের মধ্য দিয়ে জেব্রার সংখ্যা দাঁড়াল ৬-তে। গতকাল চিড়িয়াখানার জেব্রার বেষ্টনীতে গিয়ে দেখা যায়, বাচ্চা নিয়ে খুশিতে আটখানা কেনিয়ার এই দুর্লভ প্রাণীটি। পরিচর্যাকারী আবুল কালাম সেখানে গিয়ে কচি ঘাস ও গমের ভুসি খাবার খেতে দেন। খাবার পেয়ে হুমড়ি খেয়ে পড়ে বাচ্চাসহ জেব্রাটি। খাবার খেয়ে বেষ্টনীর ভিতরের চারপাশে ঘোরাঘুরি করতে থাকে বাচ্চাসহ মা জেব্রা। দুই ঘণ্টা পর দুপুরে বেষ্টনীর ভিতরের প্রকোষ্ঠের মাটিতে শুয়ে গড়াগড়ি খায়। এসব দেখে বেশ আনন্দ পায় চিড়িয়াখানায় আসা অগণিত দর্শক। দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে চিড়িয়াখানার প্রাণী ও পুষ্টি কর্মকর্তা আবু সাঈদ কামাল বাচ্চু বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, জেব্রার বাচ্চা জন্ম দেওয়ার পর থেকে  নতুন অতিথিকে দেখভাল করার জন্য কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ ছাড়া এ প্রাণী কমপক্ষে ৩০ দিন পর্যন্ত বাচ্চাকে সারাক্ষণ আগলে রাখে। সুদান, উগান্ডা ও কেনিয়াসহ সাহারা ভূমির দক্ষিণে সমতল ভূমি এদের আবাসস্থল। জেব্রা ঘোড়া জাতীয় প্রাণীর শ্রেণিভুক্ত। এ প্রাণির সারা শরীরে সাদার ওপর কালো ডোরা কাটা দাগ জেব্রাকে অধিক সৌন্দর্যমণ্ডিত করেছে। এ কর্মকর্তা আরও বলেন, এখন সদ্যোজাত বাচ্চা পেয়ে সারাক্ষণ ব্যস্ত মা। চারদিকে তার সতর্ক চাহনি। অপরিচিত কেউকে আসতে দেখলে আগলে রাখে বাচ্চাকে। তিনি আরও জানান,  জেব্রা তৃণভোজী প্রাণী। সবুজ ঘাস ও কচি শাকসবজি এদের প্রধান খাদ্য। আট মাস গর্ভধারণের পর বাচ্চার জন্ম দেয়। শিশুরাই জেব্রার সবচেয়ে বেশি ভক্ত। নতুন অতিথিকে দেখতে ভিড় ধীরে ধীরে বাড়ছে জেব্রা বেষ্টনীর সামনে।

up-arrow