Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:১৬
গুলশানে জঙ্গি হামলা
মুঙ্গেরের যোগ খতিয়ে দেখছে বিহার পুলিশ
দীপক দেবনাথ, কলকাতা

ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানে জঙ্গি হামলার সঙ্গে ভারতের বিহারের মুঙ্গের জেলার অস্ত্র ব্যবসায়ীদের কোনো যোগ আছে কি না তদন্ত শুরু করেছে বিহার পুলিশ। গত ১ জুলাই গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলাকারী জঙ্গিরা মুঙ্গেরের তৈরি অস্ত্র ব্যবহার করেছিল বলে গণমাধ্যমে যে খবর প্রকাশিত হয় তার ভিত্তিতেই শুক্রবার বিহার পুলিশের একটি দল বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। পুলিশ সূত্রে খবর, ২০১৫ সালে পুলিশি অভিযানের পর মুঙ্গেরের অস্ত্র ব্যবসায়ীরা মুঙ্গের ছেড়ে পশ্চিমবঙ্গের মালদা জেলাসহ অন্য জায়গায় ঘাঁটি বাঁধে। পুলিশের মতে, অস্ত্র ব্যবসায়ীদের কাছে পশ্চিমবঙ্গ সবসময়ই নিরাপদ আশ্রয়স্থল। বিহার পুলিশের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘এমনটা হতেই পারে যে মুঙ্গেরের অস্ত্র ব্যবসায়ীরা এখানকার তৈরি অস্ত্র ঢাকায় হামলার জন্য তৈরি করেছিল। আমাদের কাছে তথ্য আছে যে, মুঙ্গেরের তৈরি অস্ত্র সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশে পাচার করাটা তাদের (অবৈধ অস্ত্র ব্যবসায়ী) কাছে খুবই সহজ ব্যাপার।’ মুঙ্গেরের পুলিশ সুপার আশেস ভারতী জানান, ‘পুলিশ নিজের উদ্যোগে তাদের তদন্ত শুরু করেছে।’ চলতি মাসের গোড়ার দিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের কাউন্টার টেররিজমের প্রধান মনিরুল ইসলামের বরাত দিয়ে বাংলাদেশের পত্রিকা ‘ঢাকা ট্রিবিউন’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে জানানো হয়, বিহারের মুঙ্গেরে তৈরি করা অস্ত্রই চাঁপাইনবাবগঞ্জ সীমান্ত দিয়ে গুলশানের হামলাকারীদের কাছে পৌঁছেছিল। কারণ জঙ্গিদের কাছ থেকে উদ্ধার হওয়া তিনটি একে-২২ রাইফেলের গায়ে মুঙ্গেরের অস্ত্র কারখানার ছাপ পাওয়া গেছে। সূত্র জানায়, ঢাকা হামলার এক মাস আগেই একে-২২ রাইফেল ও ছোট অস্ত্র চোরাই পথে ঢাকার জঙ্গিদের হাতে পৌঁছেছিল।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow