Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৪৬
দুই নাইজেরিয়ানসহ পাঁচ প্রতারক আটক
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাজধানীতে পৃথক অভিযানে দুই নাইজেরিয়ানসহ পাঁচ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। তারা হলেন অ্যানাও, ইসি আকা হেনরি, মাইনুল কবির, ডা. নাসির উদ্দিন ও রুহুল আমিন ওরফে মিঠুন। শুক্রবার রাতে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ডিবি বলছে, এরা ক্লিনিক স্থাপনের কথা বলে প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ করতেন।

গতকাল দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে যুগ্ম-কমিশনার (ডিবি) আবদুল বাতেন বলেন, বর-বধূ ডটকম থেকে এলিফ্যান্ট রোডের ডাচ্-বাংলা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার মমতাজ বেগমের সিভি সংগ্রহ করে চক্রটি। এরপর লেবানন থেকে নাসির উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি নিজেকে জাতিসংঘের  ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ইন্টারনেটের মাধ্যমে মমতাজের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। মমতাজকে তিনি জানান, লেবাননে যুদ্ধবিধ্বস্ত পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশে ক্লিনিক স্থাপন করতে চান। এজন্য তিনি বেশকিছু টাকা পাঠাবেন, মমতাজ যেন ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। নাসির কিছু যন্ত্রাংশ মমতাজের ঠিকানায় পাঠান। সেই পণ্য কাস্টমস থেকে ছাড়িয়ে সিকিউরিটি মানির কথা বলে প্রথমে ১ লাখ ২৫ হাজার, পরে আরও ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন। পার্সেলে প্রায় দেড় কোটি টাকা মূল্যের ডলার রয়েছে উল্লেখ করে মানি লন্ডারিংয়ের ভয় দেখিয়ে মমতাজের কাছ থেকে চক্রটি আরও ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। ২১ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর আরও ১৫ লাখ টাকা দাবি করলে মমতাজ বেগম পুলিশের শরণাপন্ন হন এবং মামলা করেন। যুগ্ম কমিশনার আরও বলেন, যিনি নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়েছেন তিনিও একজন প্রতারক। তার সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট বলে কিছু নেই। ক্লিনিক স্থাপনের পুরো প্রক্রিয়াই জালিয়াতি। এ চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে ইন্টারনেটের সাহায্যে বাংলাদেশে এবং বিদেশের যেসব দেশে নাইজেরিয়ান বসবাস করেন সেসব দেশের সম্পদশালী ও সম্মানিত মানুষের তথ্য সংগ্রহ করে বিভিন্ন উপায়ে ফাঁদে ফেলে প্রতারণার মাধ্যমে অবৈধভাবে অর্থ উপার্জন করে আসছে। এ চক্রের সঙ্গে আরও সদস্য রয়েছে। তাদের ধরতে অভিযান চলছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow