Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:২৫
কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচন
আওয়ামী লীগে একাধিক প্রার্থী, বিএনপি নীরব
মহিউদ্দিন মোল্লা, কুমিল্লা

ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সরব আওয়ামী লীগ। তবে এ নিয়ে বিএনপির কোনো সাড়া শব্দ নেই। চেয়ারম্যান পদে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগে আলোচনায় রয়েছেন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ আফজল খান, কুমিল্লা জেলা পরিষদের বর্তমান প্রশাসক আলহাজ ওমর ফারুক, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার ও কুমিল্লা দক্ষিণ

 জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন স্বপন। এদিকে কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে ওয়ার্ডের সীমানা চূড়ান্ত করা হয়েছে। জেলা পরিষদের আওতাধীন এলাকাকে ১৫টি সাধারণ এবং ৫টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে বিভক্ত করে চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। কুমিল্লা জেলা পরিষদের আওতায় ১৬টি উপজেলা পরিষদ, ১টি সিটি করপোরেশন, ৮টি পৌরসভা এবং ১৮৬টি ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। এ জেলা পরিষদের একজন চেয়ারম্যান, ১৫টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৫ জন সদস্য এবং ৫টি সংরক্ষিত আসনে পাঁচজন মহিলা সদস্য নির্বাচিত করতে নির্বাচক মণ্ডলীর ২ হাজার ৬০৭ জন ভোট প্রদান করবেন। সিটি করপোরেশনের মেয়র ও কাউন্সিলর, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, পৌরসভা সমূহের মেয়র ও কাউন্সিলর এবং ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সদস্যরা নির্বাচকমণ্ডলীর সদস্য হবেন। নির্বাচনের বিষয়ে কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক অধ্যক্ষ আফজল খান বলেন, দীর্ঘদিন রাজনীতি করেছি, নেত্রী নিশ্চয় আমাকে মূল্যায়ন করবেন। মনোনয়ন পেলে জেলার উন্নয়নে আমি নির্বাচন করব। কুমিল্লা জেলা পরিষদ প্রশাসক আলহাজ ওমর ফারুক বলেন, সামর্থ্য অনুযায়ী জেলার উন্নয়নে কাজ করেছি। দল যোগ্য মনে করলে আবার মনোনয়ন পাব। কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সরকার বলেন, ৫০ বছর ধরে রাজনীতি করছি। নেত্রী নির্দেশ দিলে আমি জেলা পরিষদের নির্বাচন করব। কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ১ নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন স্বপন বলেন, আমি ৩৭ বছর ধরে আওয়ামী রাজনীতি করি। আমাদের মাঠের নেতা-কর্মীরা এখন জনপ্রতিনিধি। তারা আমাকে নির্বাচন করার জন্য উৎসাহ দিচ্ছেন। দল নিশ্চয় আমাকে মূল্যায়ন করবে। কেন্দ্রীয় বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোস্তাক মিয়া বলেন, জেলা পরিষদের নির্বাচন নিয়ে কেন্দ্র থেকে আমাদের কোনো নির্দেশনা দেওয়া হয়নি। তাই এ বিষয়ে মন্তব্য করা যাচ্ছে না।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow