Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৪২
দেশে গণতন্ত্র চর্চায় সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ
———— ফারুক চৌধুরী
দেশে গণতন্ত্র চর্চায় সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ

দেশে অধিকতর গণতন্ত্রচর্চায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক পররাষ্ট্র সচিব ফারুক আহমেদ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘এ সম্মেলনের মাধ্যমে অনেক তরুণ নেতৃত্ব বেরিয়ে আসবে।     

তারা দলের হাল ধরবে। বিশেষ করে যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করেন দলের সেই ত্যাগী ও যোগ্যরা কমিটিতে প্রাধান্য পাবেন। আমি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অধীন কাজ করেছি। তারই দল আওয়ামী লীগের অনেক ঐতিহ্য আছে। সেই দলটির সম্মেলন সমাগত। আমি এর সফলতা কামনা করছি।’ বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে একান্ত আলাপচারিতায় এসব কথা বলেন সাবেক এই রাষ্ট্রদূত। তিনি বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসনের কিছুটা ঘাটতি আছে। রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যেও গণতন্ত্রচর্চা হয় না। সে ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগের এ সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। গণতন্ত্র বিকাশে সব ঘাটতি পূরণ করবে।’ ফারুক চৌধুরী বলেন, ‘বিগত সংসদ নির্বাচনে দেশের অন্যতম একটি বড় দল বিএনপি অংশগ্রহণ করেনি। সে ক্ষেত্রে গণতন্ত্রের বিকাশ কিছুটা বাধাগ্রস্ত হয়েছে। আমি মনে করি, আগামী নির্বাচনে বিএনপি এ ভুল করবে না। তারা নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। গণতন্ত্রের বিকাশে সহযোগিতা করবে। সবার অংশগ্রহণে নির্বাচনে গণতন্ত্র পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়।’ তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নতুন নেতৃত্বে কোনোভাবেই যেন স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি ঢুকতে না পারে। জেলা পর্যায়ে সুবিধাবাদী নেতাদের কারণে জামায়াত-শিবির আওয়ামী লীগে যোগদান করেছে। কিন্তু কোনোভাবেই তারা যেন আওয়ামী লীগের কোনো পর্যায়ের নেতৃত্বে আসতে না পারে। একইভাবে আমি বিএনপিকে বলব স্বাধীনতাবিরোধী ওই অপশক্তিকে পরিত্যাগ করতে। তাদের জোট থেকে বের করে দিতে বলব। হাইব্রিড বা সুবিধাবাদী নেতারাও যাতে নেতৃত্বে না আসে সে ব্যাপারে আওয়ামী লীগ নীতিনির্ধারকদের ভাবতে হবে।’

ফারুক চৌধুরী বলেন, ‘আমি মনে করি, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ এখন অনেক শক্তিশালী। তার সুদৃঢ় নেতৃত্বে ও কূটনৈতিক দক্ষতায় দেশ আজ অনেক দূর এগিয়েছে। আজ দেশ খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসাসহ উন্নয়নে বিশ্বের নজর কেড়েছে। শেখ হাসিনা যুগান্তকারী সাফল্য বয়ে এনেছেন। তবে তার এ সাফল্য এক দিনে আসেনি। অনেক কাঠখড় পোড়াতে হয়েছে। আজ সেই বিশ্বব্যাংক পর্যন্ত বাংলাদেশের দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়নের প্রশংসা করছে।’ সার্কের প্রথম এই সচিব বলেন, ‘একটি সুন্দর মুহূর্তে এ সম্মেলন হতে যাচ্ছে। আশা করি, আওয়ামী লীগ এর সদ্ব্যবহার করবে। দেশে গণতন্ত্রচর্চায় আরও কার্যকর ভূমিকা পালন করবে। সম্মেলন শুভ হোক।’

এই পাতার আরো খবর
up-arrow