Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৯
দেশের সামনে দুটি বড় বিপদ
—ওবায়দুল কাদের
নোয়াখালী প্রতিনিধি

দেশের সবচেয়ে দুটি বড় বিপদ, দুটি বড় চ্যালেঞ্জ। এর একটি জঙ্গিবাদ, অন্যটি মাদক।

এ দুটির বিরুদ্ধে দলমতনির্বিশেষে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নোয়াখালীর শহীদ ভুলু স্টেডিয়ামে গতকাল কমিউনিটি পুলিশিং সমাবেশ, ২০১৭-এ প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, কমিউনিটি পুলিশিং হচ্ছে জনগণের সঙ্গে পুলিশের আস্থার সেতুবন্ধ। নোয়াখালীর পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফের সভাপতিত্বে সমাবেশে প্রধান আলোচক ছিলেন আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক। তিনি বলেন, জনগণের সহযোগিতা ছাড়া মাদক নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়।

সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তৃতা করেন সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস, মামুনুর রশিদ কিরণ, মোরশেদ আলম, এ এইচ এম ইব্রাহীম, নোয়াখালী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ডা. এ বি এম জাফর উল্যা, জেলা প্রশাসক বদরে মুনির ফেরদৌস ও প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী জাহাঙ্গীর আলম। এ সময় মন্ত্র্রী আরও বলেন, গুটিকয়েক অসৎ পুলিশ সদস্যের ঘুষ, দুর্নীতি ও অন্যায়ের দায়ভার পুরো বাহিনী নিতে পারে না। তিনি সম্প্রতি কয়েকটি জঙ্গি আস্তানায় পুলিশের সাহসী অভিযান ও মাদক নিয়ন্ত্রণে ভূমিকার কথা তুলে ধরেন। শুধু পুলিশ ঘুষ খায় তা নয়, রাজনীতিকরাও ঘুষ খান।

টাকার বিনিময়ে চাকরির জন্য সুপারিশ, তদবির সবই করেন। নির্বাচন এলে রাজনীতির অঙ্গন টাকায় বেচা-কেনা হয়। রাজনীতিকদেরও সৎ হতে হবে।

বিকালে মন্ত্রী কোম্পানীগঞ্জ থানার নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন করেন। এ সময় তিনি বলেন, বিএনপির আমলে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনা বিশ্ব রেকর্ড করেছে। তাদের মুখে সাংবাদিক নির্যাতনের কথা ভূতের মুখে রাম নামের সমান। এ সময় অন্যদের মধ্যে পুলিশ আইজিপি এ.কে.এম শহীদুল হক, জেলা পুলিশ সুপার ইলিয়াছ শরীফসহ গণ্যমান্য ব্যক্তি উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow