Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২২
অষ্টম কলাম
শেষ হলো ইন্দো-বাংলা অটোমোটিভ শো
নিজস্ব প্রতিবেদক
শেষ হলো ইন্দো-বাংলা অটোমোটিভ শো

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) দর্শক-ক্রেতার জমজমাট অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে গতকাল ইন্দো-বাংলা অটোমোটিভ প্রদর্শনী শেষ হয়েছে। সমাপনী দিনে ছিল উপচেপড়া ভিড়।

প্রদর্শনীতে দেখা গেছে, আধুনিক সুবিধাসংবলিত বিভিন্ন মানের ভেহিক্যাল কিনতে দর্শনার্থীরা ব্যস্ত ছিলেন। টাটা মোটরস, উত্তরা মোটরসসহ অটোমোবাইল কোম্পা?নিগুলোর প্যা?ভি?লিয়নে দর্শকের বেশি আগ্রহ লক্ষ্য করা গেছে। টাটার তৈরি ন্যানো কিনতে আগ্রহ ছিল সবচেয়ে বেশি। অনেকেই ন্যানো কেনার জন্য বুকিংও দিয়েছেন। স্টল কর্মীরা জানিয়েছেন, গ্রাহকরা অনেকেই গাড়ি, এমনকি ট্রাক কিনতে অর্ডার দিয়েছেন। প্রদর্শনীর আয়োজকরা জানিয়েছেন, রাজধানীর বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে দর্শকদের জন্য বিশেষ গাড়ির ব্যবস্থা করায় শেষ দিনে ব্যাপক সমাগম ঘটে। সূত্র জানায়, এবারের প্রদর্শনীতে ১৩টি অটোমোবাইল কোম্পানি অংশ নেয়। শোতে টাটা মোটরস ১১টি নতুন কমা?র্শিয়াল ভেহিক্যাল প্রদর্শন করে। প্রদর্শনীতে টাটা ছাড়াও অংশ নেয় অশোক লেল্যান্ড, উত্তরা, রানার, নিটল নিলয়, হিরো, টি?ভিএস, ইয়ামাহা, বাজাজ কোম্পানি। আধুনিক সুবিধাসম্পন্ন বিভিন্ন ব্র্যান্ডের গাড়ির মধ্যে ছিল ৮ ফুট লম্বা লোড বডির ছোট পণ্যবাহী গাড়ি, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত ছোট ভ্যান, মিউনিসিপ্যালিটির বর্জ্য ব্যবস্থাপনার মিনি ট্রাক, শক্তিশালী পিকআপ ইত্যাদি। নির্মাণকাজে ব্যবহারের জন্য বিভিন্ন শক্তিশালী টিপারও ছিল। স্টল কর্মীরা জানান, এ টিপার দেশের সব নির্মাণ প্রকল্পে ব্যবহার-উপযোগী। যে কোনো ধরনের কাজে সহজে অপারেট করতে খুবই দক্ষ এ গাড়ি। এ ছাড়া ঢাকাসহ শহরের যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে কিংবা অফিশিয়াল যাত্রী পরিবহনের ক্ষেত্রে টাটা নিয়ে এসেছিল ১২ সিটের বাস। স্বল্প মেইনটেন্যান্সে খুবই চমৎকার মডেলের গাড়িটি সবার নজর কাড়ে। আন্তনগর যাত্রী পরিবহনে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত লাক্সারি বাসও প্রদর্শন করা হয়। এসব গাড়িতে বিনিয়োগ করতে চাইলে কোম্পানির পক্ষ থেকে ব্যাংকিং সুবিধা দিয়ে সহযোগিতা দেওয়া হয়েছে। প্রসঙ্গত, সোসাইটি অব ইন্ডিয়ান অটোমোবাইল ম্যানুফ্যাকচারার্সের উদ্যোগে ঢাকায় এই প্রথমবারের মতো এ প্রদর্শনী করা হয়। এতে ভারত ও বাংলাদেশের প্রথম সারির অটোমোটিভ কোম্পানির আন্তর্জাতিক মানের অটোমোবাইল প্রদর্শন করা হয়। ২ ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া তিন দিনব্যাপী মেলা সবার জন্য ছিল উন্মুক্ত।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow