Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : রবিবার, ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৭
প্রানের মেলা প্রতিদিন
উপচে পড়া ভিড় সব বয়সী মানুষের
মোস্তফা মতিহার
উপচে পড়া  ভিড় সব বয়সী মানুষের

উপচে পড়া ভিড় ছিল গতকালের প্রাণের মেলায়। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শিশুদের আর বিকালে এর সঙ্গে যোগ সব বয়সী মানুষের।

ছুটির দিন হওয়ায় পুরো সময় জমজমাট ছিল বইমেলা।

গতকাল মেলার একাদশ দিনে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমি অংশে আগতদের উচ্ছ্বাস, বই কেনা, প্রিয় লেখকের সঙ্গে সেলফি তোলার ঘটনা ছিল উল্লেখযোগ্য। মেলার দ্বার খোলা হয়েছিল বেলা ১১টায় এবং বন্ধ হয় যথারীতি রাত সাড়ে ৮টায়। দিনটি ছিল এবারের মেলার চতুর্থ শিশুপ্রহর। ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত শিশুপ্রহরে আনন্দ-উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠে শিশুরা। বাবা-মায়ের হাত ধরে মেলায় আসা শিশুরা এ সময় শিশু কর্নারের স্টলগুলো ঘুরে ঘুরে পছন্দের বই কিনে বাড়ি ফেরে। বিকালে মেলা পরিদর্শনে আসেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। তিনি উন্মোচন মঞ্চে বেশকিছু বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। পরিদর্শনকালে মেলার বিভিন্ন বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন মন্ত্রী।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা মেলায় সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতে চাই। পাঠকরা যাতে নির্বিঘ্নে মেলায় ঘুরতে পারেন, বই সংগ্রহ করতে পারেন, ক্লান্ত হলে একটু বসে বিশ্রাম নিতে পারেন এই দিকগুলো নিশ্চিত করেছি। ’ বিকালে মেলায় আসেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। নবনিযুক্ত প্রধান নির্বাচন কমিশনারের (সিইসি) নেতৃত্বে কমিশন নিরপেক্ষ ভূমিকা পালনে কখনই সক্ষম হবে না বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন। এ সময় মির্জা ফখরুল ‘পদ্মা সেতু প্রকল্পে কানাডার আদালতে দুর্নীতি প্রমাণিত হয়নি’ বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, কোনো রায় বা কানাডার আদালতের বিচারের ব্যাপারে আমরা কখনই মন্তব্য করিনি এবং আমাদের মূল বক্তব্য সেই সময় যা ছিল, এখনো তাই। কারও বিরুদ্ধে কোনো দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে, কোথায় কী প্রমাণিত হলো না বা হলো, তা আমাদের বিষয় নয়। ’ সন্ধ্যায় মেলায় আসেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি মেলা ঘুরে দেখেন। এবারের মেলায় চারুলিপি প্রকাশন থেকে প্রকাশিত হয়েছে তার লেখা গ্রন্থ ‘রুখে দাঁড়াবার সময়’। নতুন বই : গতকাল একাদশ দিনে মেলায় ২০১টি নতুন বই এসেছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো বিজয় প্রকাশ থেকে বের হওয়া তারিক সজীবের ‘বিচিত্র প্রবন্ধ সংকলন’; অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে আহমদ রফিকের ‘সংঘাতময় বিশ্বরাজনীতি’, চন্দ্রাবতী একাডেমি থেকে ড. আনিসুজ্জামানের ‘কথার কথা’; পাঞ্জেরি পাবলিকেশন্স থেকে আনোয়ারা সৈয়দ হকের ‘কিশোর উপন্যাস সমগ্র ২’; অন্বেষা থেকে নুরুজ্জামান লাবুর ‘হোলি আর্টিজান একটি জার্নালিস্টিক অনুসন্ধান’; কথাপ্রকাশ থেকে লুত্ফর রহমান রিটনের ‘ভ্রমর যেথা হয় বিবাগী’; দি রয়েল পাবলিশার্স থেকে নির্মলেন্দু গুণের ‘যুগল কাব্য’; অনিন্দ্য প্রকাশ থেকে আহমদ রফিকের ‘ঢাকার মুক্তিযুদ্ধের দিনগুলো’।

এ ছাড়া মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের মোড়ক উন্মোচন মঞ্চে ৬২টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

মূল মঞ্চ : বিকাল ৪টায় মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘আবদুল গফুর হালী : জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন নাসির উদ্দিন হায়দার। আলোচনায় অংশ নেন রাহমান নাসির উদ্দিন ও সাইমন জাকারিয়া। সভাপতিত্ব করেন শামসুল হোসাইন।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন কল্যাণী ঘোষ, কান্তা নন্দী, বিমানচন্দ্র বিশ্বাস ও সাজেদুল ইসলাম ফাতেমী।

up-arrow