Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৮
প্রানেরমেলা প্রতিদিন
স্টলে স্টলে ভিড় হাতে হাতে বই
সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক
স্টলে স্টলে ভিড় হাতে হাতে বই

এই নগরী বইয়ের, মেধা, মনন, সৃজনশীলতা আর শৈল্পিকতার। বইয়ের প্রতি বাঙালির অমোঘ আকর্ষণ চিরকালীন।

প্রযুক্তির উৎকর্ষতা আর আকাশ সংস্কৃতির আধিপত্য বইয়ের প্রেম থেকে বাঙালিকে বিন্দুমাত্র বিচ্যুত করতে পারেনি। হাতে হাতে বই, ব্যাগ ভর্তি বই, স্টলে স্টলে ভিড়। বইয়ের জন্য দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে দোয়েল চত্বর থেকে টিএসসি পর্যন্ত অধীর আগ্রহে অপেক্ষা গতকাল এমন চিত্রই ছিল অমর একুশে গ্রন্থমেলার দ্বাদশ দিনে। আজ বসন্ত আর কাল ভালোবাসার দিনের আগেই গতকাল দ্বাদশ দিনে বসন্ত আর ভালোবাসার প্রভাব ছিল মেলাজুড়ে। তিন দিনের         মতো গতকাল প্রচুর ভিড় ছিল মেলায়। এ ধারা অব্যাহত থাকলে এ বছরের মেলা বিগত বছরগুলোর সব সফলতাকে ছাড়িয়ে যাবে বলে মনে করেন প্রকাশকরা। অন্যবার হঠাৎ ছন্দপতন ঘটে থাকলেও এবার বই নিয়ে যেভাবে বইপ্রেমীদের আগ্রহ লক্ষ্য করা যাচ্ছে সে কারণে এবারের মেলায় ছন্দপতনের আশঙ্কা নেই বলে আশাবাদী বেশির ভাগ প্রকাশক। এ বিষয়ে ঐতিহ্য প্রকাশনীর ব্যবস্থাপক আমজাদ হোসেন কাজল বলেন, দিন যতই যাচ্ছে মেলা ততই সফলতার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। মেলায় আগতরা যেভাবে বইয়ের প্রতি আগ্রহী হচ্ছেন এতে করে এবারের মেলা অন্যবারের সব সফলতাকে ছাড়িয়ে যাবে। একই কথা বললেন অন্বেষা প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী শাহাদাৎ হোসেন। তিনি বলেন, বইয়ের প্রতি মানুষ যেভাবে আগ্রহী হচ্ছেন তাতে আমি এবারের মেলা নিয়ে আশাবাদী। কথা প্রসঙ্গে উদীয়মান লেখক হামিদ মোহাম্মদ জসিম বলেন, প্রত্যেক লেখক যদি একটি করে বই কেনেন তাহলে মেলা অবশ্যই সফলতার দিকে এগিয়ে যাবে। চারদিকে যখন নানা রকম অস্থিরতা ও দুঃসংবাদ বাঙালিকে তাড়া করে ফিরছে সে সময় বইয়ের প্রতি মানুষের প্রেম নিঃসন্দেহে একটি গৌরবের বিষয়। মেলার দ্বাদশ দিনে বই কেনার পাশাপাশি সেলফিতে নিজেদের বন্দী করায় মেতে উঠেন আগতরা। প্রায় সবশ্রেণির মানুষ এ দিন ব্যাগ ভর্তি বই কিনে বাড়ি ফেরে।

দর্পণ কবীরের ‘আমি ভূত বলছি’ : বইমেলায় এবার দর্পণ কবীরের বই ‘আমি ভূত বলছি’ বের হচ্ছে। ভূতবিষয়ক ৭টি গল্প রয়েছে এই গ্রন্থে। ভূত নিয়ে রম্য ধাঁচের গল্প লিখেছেন বলে জানিয়েছেন লেখক দর্পণ কবীর। তিনি জানান, সব বয়সী পাঠকের ভালো লাগবে গল্পগুলো। বইটি বের হচ্ছে বিশ্বসাহিত্য বিতান প্রকাশনী থেকে। এই গ্রন্থের প্রচ্ছদ ও অলঙ্কার করেছেন মামুন হোসাইন। বইটির দাম রাখা হয়েছে ২০০ টাকা।

যদি কখনো ভালোবাস : সাখাওয়াত হোসেন সুজনের প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘যদি কখনো ভালোবাস’ প্রকাশ করেছে ‘শিল্পৈশী’ প্রকাশনী। পরিবেশক পূর্বা ও প্রকৃতি প্রকাশনী। স্টল নম্বর ২৭৫ ও ৪৯০। লিটল ম্যাগ চত্বরে ১৭ নম্বর স্টলেও (রোদ্দুর) পাওয়া যাবে। দাম ১২০ টাকা।

নতুন বই : বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ্র থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গতকাল ১২তম দিনে মেলায় এসেছে ৯৬টি নতুন বই। মেলায় ৩২টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে। গতকাল প্রকাশিত উল্লেখযোগ্য বইগুলো হলো : শিশু কিশোর প্রকাশন থেকে প্রকাশিত হামিদ মোহাম্মদ জসিমের ‘অমর কিশোর শেখ রাসেল’ ও ‘ভূতের রাজ্যে একরাত’ পুঁথিনিলয় থেকে প্রকাশিত মাজেদুল নয়নের ‘উইথআউট বর্ডার’, অবসর থেকে আশা নাজনীনের ‘স্বামীসূত্র’, মুক্তধারা প্রকাশনী থেকে সিরাজুল ইসলাম চৌধুরীর ‘একত্তরের যুদ্ধ ও জাতীয়তাবাদের পরীক্ষা’, দেশ পাবলিকেশন্স থেকে পিনাকি দাশগুপ্তের ‘শরণার্থী ক্যাম্পের দিনগুলো’, অনন্যা থেকে গোলাম মাওলা রনির ‘অগ্নি থেকে তেল ভানু মতির খেল’, চৈতন্য থেকে প্রান্ত পলাশের ‘আমার কীরাম জানি লাগে’।

মূল মঞ্চ : গতকাল বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘দীনেশচন্দ্র সেনের সার্ধশত জন্মবার্ষিকী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক সৈয়দ আজিজুল হক। আলোচনায় অংশ নেন ড. মাহবুবুল হক এবং ড. এম আবদুল আলীম। সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক মোহাম্মদ আবদুল কাইউম। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে আবৃত্তি পরিবেশন করেন রেজিনা ওয়ালী লীনা, মো. রফিকুল ইসলাম, এস এম মাহিদুল ইসলাম এবং শাহাদাৎ হোসেন নিপু। সংগীত পরিবেশন করেন স্বপ্না রায়, চন্দনা মজুমদার, মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন চৌধুরী, মো. নূরুল ইসলাম এবং রহিমা খাতুন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow