Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৯
কৃষি সংবাদ
দিনাজপুরে গাছে গাছে মুকুল
দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরে গাছে  গাছে মুকুল

আবহাওয়া অনুকূল থাকায় এরই মধ্যে দিনাজপুরের ৭০ ভাগ আমগাছে মুকুল এসেছে। কৃষি বিভাগ বলছে, প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে এবারও আমের বাম্পার ফলন হবে।

আম বাগানীরা জানান, ফাগুন মাসের শুরুতেই দিনাজপুর সদর, নবাবগঞ্জ, বিরলসহ বিভিন্ন উপজেলার আম বাগানের প্রায় সব গাছেই মুকুল এসে গেছে। আম্রপালী, ল্যাংড়া, গোপালভোগ, সূর্যাপূরী, আসিনিয়া, ছাতাপড়া, ফজলী, চিনি ফজলী, সুরমাই, মিশ্রীভোগসহ দেশি জাতের আম গাছগুলোতে এ মুকুল শোভা পাচ্ছে। আর কয়েকদিনের মধ্যেই শতভাগ গাছে মুকুল এসে যাবে। তারা আরও জানান, বৈশাখ মাসে আম পাকা শুরু হয় এবং আশ্বিন ও কার্তিক মাসের শেষ পর্যন্ত বাজারে আম পাওয়া যাবে। যদিও এরই মধ্যে আম বাগান বেচা-কেনা শুরু হয়ে গেছে। ৬ মাস ধরে এই ব্যবসা চলবে। বিভিন্ন বাগানের মলিকরা জানান, মুকুলে যাতে কোনো ছত্রাক জাতীয় রোগবালাই না লাগে সেজন্য কীটনাশক স্প্রে করা হচ্ছে। কৃষি সম্প্রসারণ বিভাগ জানায়, আম ও লিচুর জন্য বিখ্যাত দিনাজপুরের ১৩টি উপজেলায় ছোটবড় মিলে ৪ হাজার ৭৭টি বাগানে প্রায় ৩ লাখ আম গাছ রয়েছে। প্রতি মৌসুমে এ জেলার আম বিক্রি থেকে অর্জিত হয় গড়ে ৫০ থেকে ৬০ কোটি টাকা। ৩ হাজার ১৮৩ হেক্টর আবাদী জমিতে এবং ১ হাজার ৬০০ হেক্টর বসতবাটিতে আম বাগান করা হয়েছে। বিরল কৃষি কর্মকর্তা আশরাফুল আলম জানান, প্রকৃতি এবং আবহাওয়া অনুকূল থাকলে এবারও দিনাজপুরে ফলন হবে বাম্পার। রেকর্ড পরিমাণ ফলন আশা করা হচ্ছে সদর, বিরল, কাহারোল, চিরিরবন্দর, বীরগঞ্জ, নবাবগঞ্জ এলাকার বাগানগুলো  থেকে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow