Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০২:৪০
অবৈধ বাংলাদেশিদের দ্রুত ফেরত পাঠানোর পথ খুঁজছে ইইউ
কূটনৈতিক প্রতিবেদক

ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত (ইইউ) দেশগুলোতে অবৈধভাবে অবস্থানকারী বাংলাদেশিদের যত দ্রুত সম্ভব দেশে  ফেরত পাঠানোর জন্য একটি স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর চূড়ান্ত করার বিষয়ে একমত হয়েছে বাংলাদেশ ও ইইউ।

গতকাল ব্রাসেলসে বাংলাদেশ-ইইউ দ্বিতীয় কূটনৈতিক পর্যালোচনা বৈঠকে এ বিষয়ে দুই পক্ষ একমত হয়।

  বৈঠকে বাংলাদেশের পক্ষে পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক নেতৃত্ব দেন এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষে  নেতৃত্ব দেন এশিয়া প্যাসিফিক বিভাগের ব্যবস্থাপনা পরিচালক গানার উইগান্ড। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নিয়মবহির্ভূত অভিবাসনের ঝুঁকি বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রচারণামূলক কার্যক্রম চালানোর বিষয়ে দুই পক্ষ একমত হয় এবং এ প্রচারণামূলক কার্যক্রম ঢাকায় ২৮ ফেব্রুয়ারি একটি কর্মশালা আয়োজনের মাধ্যমে শুরু হবে। বৈঠকে কানেক্টিভিটি, অভিবাসন, শান্তি ও নিরাপত্তা, সন্ত্রাসবাদ, এজেন্ডা ২০৩০, বিজ্ঞান, প্রযুক্তি, উদ্ভাবন বিষয়গুলো নিয়ে দুই পক্ষ আলোচনা করে। বৈঠকে আরও সিদ্ধান্ত হয়, দুই পক্ষ ২০১৮ সালে আলোচনায় বসবে।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অবৈধ হয়ে পড়া কিংবা অবৈধভাবে যাওয়া বিদেশিদের  নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে একটি চাপ অভ্যন্তরীণভাবেই তৈরি হয়েছে। এরই মধ্যে ইইউ ও তুরস্কের মধ্যে চুক্তি অনুযায়ী অবৈধ তুর্কি অভিবাসীদের ফেরত পাঠানো শুরু হয়েছে। বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও  তেমন ভাবা হচ্ছে। গত বছর ঢাকায় অনুষ্ঠিত প্রথম বাংলাদেশ-ইইউ দ্বিতীয় কূটনৈতিক পর্যালোচনা বৈঠকে অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত পাঠানোর বিষয়টি ঢাকার কর্মকর্তাদের জানানো হয়। তখন থেকেই বাংলাদেশ কূটনৈতিকভাবে সেটি মোকাবিলায় কাজ করছে।

ইইউভুক্ত বিভিন্ন দেশে প্রায় ৮০ হাজার বাংলাদেশি অবৈধ থাকতে পারেন বলে বিভিন্ন পর্যায়ে ধারণা করা হচ্ছে। বর্তমানে ইউরোপের দেশগুলোতে বৈধ-অবৈধভাবে প্রায় আড়াই লাখ বাংলাদেশি অবস্থান করছেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow