Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২০ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:১৮
সংবাদমাধ্যম অসৎ, বললেন ট্রাম্প
নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদ প্রত্যাখ্যান হারওয়ার্ডের
প্রতিদিন ডেস্ক
নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদ প্রত্যাখ্যান হারওয়ার্ডের
ডোনাল্ড ট্রাম্প

সাংবাদিক ও সংবাদমাধ্যমের ওপর ক্ষোভ কমছেই না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। বৃহস্পতিবার অনির্ধারিত এক সংবাদ সম্মেলনে ফের তুলাধোনা করেছেন সংবাদমাধ্যমকে।

গণমাধ্যমের বিরুদ্ধে সরাসরি অসততার অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘প্রেস নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। তাদের অসততার মাত্রা নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে। ’ তার প্রশাসনের বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে বলতে গিয়ে এর জন্য সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাকে দায়ী করার চেষ্টা করেন ট্রাম্প। তার অভিমত, আগের প্রশাসন তার জন্য বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি রেখে গেছে। পাশাপাশি রাশিয়ার সঙ্গে তার প্রচার শিবিরের লোকজনের যোগাযোগ ছিল এমন সংবাদ প্রতিবেদনকে ‘ভুয়া সংবাদ’ (ফেক নিউজ) বলে উড়িয়ে দেন। সিএনএনের খবরে বলা হয়, ট্রাম্পের এ সংবাদ সম্মেলন তার লেভেলকেও অতিক্রম করেছে। এদিকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন নৌবাহিনীর সাবেক ভাইস অ্যাডমিরাল রবার্ট হারওয়ার্ড। খবরে বলা হয়, সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠরা উপস্থিত ছিলেন। যারা ক্ষণে ক্ষণে তার মন্তব্যের পর উল্লাস প্রকাশ করেছেন। ১ ঘণ্টা ১৫ মিনিটের ওই সংবাদ সম্মেলনে তিনি এমন সব কথা বলেছেন যা আমেরিকার আধুনিক রাজনৈতিক ইতিহাসে খুবই ব্যতিক্রম। তার কথায় রাগ যেন ঠিকরে বের হচ্ছিল। প্রকাশ্যে কোনো প্রেসিডেন্ট খুব কমই এমনটা দেখিয়েছেন। আর মাত্র চার সপ্তাহ ক্ষমতায়  থাকা কারও বেলায় এমনটা প্রায় নজিরবিহীন। সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, সংবাদপত্রগুলোয় কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রশাসনে বিশৃঙ্খলার খবরে তিনি অত্যন্ত বিরক্ত। তার দাবি, তার প্রশাসন অত্যন্ত সুচারুভাবে কাজ করছে অনেকটা যন্ত্রের মতো।

হোয়াইট হাউসের নানা সমস্যার জন্য ট্রাম্প তার পূর্বসূরি প্রশাসনকে দায়ী করার চেষ্টা করে বলেন, সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার আমল থেকেই তিনি একটি জট পাকানো অবস্থা পেয়েছেন। এমন একটি অবস্থার মধ্যেও বর্তমান প্রশাসন ভালো চলছে। গণমাধ্যমে গোয়েন্দা তথ্য ফাঁসের সমালোচনা করে ট্রাম্প বলেন, ‘এত অসৎ গণমাধ্যম, সত্যি বলতে, রাজনৈতিক গণমাধ্যমের চেয়ে এমন অসৎ মাধ্যম আমি আর দেখিনি। ’ জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনের পদত্যাগের বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘রাশিয়ার কাছে তথ্য ফাঁসের বিষয়টি সত্য। কিন্তু সংবাদমাধ্যম যে খবর দিয়েছে তা ভুয়া। ওই খবরের বেশির ভাগই ভুয়া। ’ ট্রাম্পের সহযোগীদের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক নিয়ে ক্রমেই যে বিতর্ক দানা বাঁধছে তা বৈরী সংবাদমাধ্যমেরই ‘কারসাজি’ বলে উল্লেখ করেন তিনি। সেই সঙ্গে গত বছর নির্বাচনের আগে মস্কোর গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের সঙ্গে তার নির্বাচনী প্রচার শিবিরের যোগাযোগের বিষয়টি নিয়ে গণমাধ্যমের খবরও ‘ভুয়া’ বলে জানান ট্রাম্প। গণমাধ্যমের সমালোচনায় ট্রাম্প আরও বলেন, ‘কালই তারা বলবে, ডোনাল্ড ট্রাম্প সাংবাদিকদের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন, উন্মত্তের মতো কথা বলছেন। কিন্তু আমি তা করছি না। আমি কেবল আপনাদের বলছি, আপনারা জানেন, আপনারা অসৎ মানুষ। ’

ট্রাম্পের প্রস্তাব ফিরিয়ে দিলেন হারওয়ার্ড : মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদের বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন নৌবাহিনীর সাবেক ভাইস অ্যাডমিরাল রবার্ট হারওয়ার্ড। হোয়াইট হাউসের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন। বিতর্কের মুখে মাত্র দুই সপ্তাহের মাথায় সোমবার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিনের পদত্যাগের পর হারওয়ার্ডকে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টার পদের প্রস্তাব দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, এই পদে বসার জন্য তিনি তার পছন্দের লোকজনকে সংস্থার বিভিন্ন পদে বসাতে চান। কিন্তু ট্রাম্প এতে রাজি হননি। এ কারণে ওই পদ নিতে আর উৎসাহী হননি হারওয়ার্ড। যদিও হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা দাবি করেছেন, প্রস্তাব গ্রহণ না করার বিষয়ে হারওয়ার্ড পারিবারিক ও আর্থিক কারণ উল্লেখ করেছেন। রাশিয়ার ওপর থেকে মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া নিয়ে দেশটির এক কূটনীতিকের সঙ্গে আলোচনার অভিযোগের মুখে পদত্যাগে বাধ্য হন ফ্লিন। এএফপি, বিবিসি, সিএনএন।

up-arrow