Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৯
বসুন্ধরায় ফেব্রিক মেলার শেষ দিনেও ছিল ভিড়
নিজস্ব প্রতিবেদক
বসুন্ধরায় ফেব্রিক মেলার শেষ দিনেও ছিল ভিড়

ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) আয়োজিত ফেব্রিক মেলার শেষ দিনেও ছিল ভিড়। দেশ-বিদেশের গার্মেন্ট-সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের উদ্যোক্তাদের পদভারে মুখরিত ছিল মেলাপ্রাঙ্গণ।

গতকাল মেলায় গিয়ে দেখা গেছে দেশি-বিদেশি প্রতিষ্ঠানের বিশ্বসমাদৃত ফেব্রিক পণ্যের বিশাল সমাহার। মেলায় অত্যাধুনিক পণ্যের সঙ্গে পরিচিত হতে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এসেছেন উদ্যোক্তারা।

মেলায় এবার প্রথমবারের মতো বিদেশি প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। চীন, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া, শ্রীলঙ্কা, ভারত ও বাংলাদেশের প্রায় ১৮০টি প্রতিষ্ঠান এতে অংশ নেয়।  

গার্মেন্টশিল্পের সুতা, ডেনিম, নিটেড ফেব্রিক্স, ফ্লিস্, ইয়ার্ন অ্যান্ড ফাইবার, আর্টিফিশিয়াল লেদার, অ্যামব্রয়ডারি, বাটন, জিপার, লিনেন ব্লেন্ডসহ অ্যাপারেল পণ্য কিনতে হাজার হাজার ক্রেতা আসেন মেলায়। এটি গার্মেন্ট ইন্ডাস্ট্রির ভোক্তা, উদ্যোক্তা, আমদানিকারক ও সরবরাহকারীদের জন্য ওয়ানস্টপ প্লাটফরম। গার্মেন্টশিল্পের উদ্যোক্তাদের সঙ্গে সরাসরি কথা বলে অর্ডার দিতেও পারছেন। মেলার আয়োজকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দেশের গার্মেন্টশিল্প উদ্যোক্তাদের জন্য সহায়ক হিসেবে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছিল। যেসব উদ্যোক্তা আন্তর্জাতিক মানের ফেব্রিকস সম্পর্কে বেশি ধারণা রাখেন না তাদের জন্য এ প্রদর্শনী একটি বিশাল সম্ভাবনা এনে দেবে।

প্রদর্শনীতে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা বিদেশি ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। ক্রেতা ও উদ্যোক্তাদের মেলবন্ধন ঘটানো ছিল প্রদর্শনীর মূল উদ্দেশ্য। প্রদর্শনীতে সাড়া পড়েছে ব্যাপক। ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইয়ার্ন অ্যান্ড ফেব্রিক শো বাংলাদেশের গার্মেন্টশিল্পের ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে। আন্তর্জাতিক আয়োজক সংস্থা সেমস্ গ্লোবাল ইউএসএ ও সিসিপিআইটি টেক্স চায়না যৌথভাবে আয়োজন করে এ মেলার।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow