Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৪
ত্রিপক্ষীয় সভায় সমঝোতা
দক্ষিণের আট রুটে বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

২ দিন পর বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনা জেলার ৮ রুটের বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার করা হয়েছে। গতকাল রাতে বরগুনা সার্কিট হাউসে ধর্মঘটি বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনা বাস মালিক সমিতি এবং শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাদের সঙ্গে জেলা ও পুলিশ প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের ত্রি-পক্ষীয় সমঝোতা সভায় ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয়।

সভায় মহাসড়কে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল এবং সব ধরনের থ্রি-হুইলার চলাচল বন্ধে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়া এবং আমতলীতে বাস শ্রমিকদের বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারে প্রশাসনিক সিদ্ধান্ত হয়। এ প্রেক্ষিতে ধর্মঘট প্রত্যাহারের ঘোষণা দেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন। এর ফলে শনিবার থেকে এই ৩ জেলার বন্ধ থাকা ৮ রুটে যাত্রীবাহী বাস চলাচল করবে।

বরগুনার জেলা প্রশাসক ড. বশিরুল আলমের সভাপতিত্বে সমঝোতা সভায় পুলিশ সুপার বিজয় কুমার বসাক, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. নুরুজ্জামান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তোফায়েল আহম্মেদ, বরিশাল-পটুয়াখালী মিনিবাস মালিক সমিতির নির্বাহী সভাপতি নজরুল ইসলাম খোকন, সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন, পটুয়াখালী বাস মালিক সমিতির সভাপতি রিয়াজউদ্দিন মৃধা, সাধারণ সম্পাদক দুলু মৃধা, বরগুনা বাস মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা কিসলু এবং সাধারণ সম্পাদক ছগির হোসেনসহ ৩ জেলার পরিবহন শ্রমিক নেতারা অংশগ্রহণ করেন। বরিশাল-পটুয়াখালী মিনি বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাওছার হোসেন শিপন জানান, গত বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে বরিশাল বরিশাল, পটুয়াখালী এবং বরগুনার ৮ রুটে অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছিল।

শিপন বলেন, ধর্মঘটের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার রাতে বরগুনা সার্কিট হাউসে এক সভায় বরগুনার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. নুরুজ্জামানকে প্রধান করে একটি সাব-কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি পরবর্তী এক সপ্তাহের মধ্যে মহাসড়ক থেকে সকল ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল ও থ্রি হুইলার চলাচল বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেবে। একই সঙ্গে বাস শ্রমিকদের বিরুদ্ধে আমতলিতে দায়েরকৃত মামলাও প্রত্যাহারের আশ্বাস দিয়েছে প্রশাসন। এর প্রেক্ষিতে মালিক-শ্রমিক সকলে সন্তুষ্ট হয়ে ধর্মঘট প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow