Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০৭
অবহেলিত একুশ ও ভাষা আন্দোলন
মোস্তফা মতিহার
অবহেলিত একুশ ও ভাষা আন্দোলন

ভাষার দাবিতেই একুশের সৃষ্টি। একুশ আর ভাষা একে অপরের পরিপূরক।

ভাষা শহীদ ও একুশের চেতনায় ঋদ্ধ হয়েই প্রতি বছর ফেব্রুয়ারিতে হচ্ছে ‘অমর একুশে গ্রন্থমেলা’। কিন্তু মেলায় প্রকাশনার দিক থেকে গল্প, কবিতা, উপন্যাস, প্রবন্ধ, রাজনীতি, রম্য/ধাঁধা, সায়েন্স ফিকশন থাকলেও নেই কেবল একুশ। স্টল ঘুরে দেখা গেছে, গল্প, কবিতা, উপন্যাসের ছড়াছড়ি থাকলেও একুশ ও ভাষা নিয়ে প্রকাশনা নেই বললেই চলে। একুশ তথা ভাষা আন্দোলন কি শুধু পাঠপুস্তকেই সীমাবদ্ধ— এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বেড়াচ্ছেন মেলায় আগতরা। বছরের একদিন শহীদ মিনারের প্রভাতফেরি আর শরীরে বর্ণমালার উল্কি অঙ্কনের মধ্যেই একুশ এখন সীমাবদ্ধ। বরাবরের মতো এবারের গ্রন্থমেলায়ও একুশ তথা ভাষা আন্দোলন নিয়ে প্রকাশনা একেবারেই অপ্রতুল। গতকাল মেলার ১৯তম দিন পর্যন্ত ২ হাজার ৩৯০টি বই প্রকাশ হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ প্রকাশিত গ্রন্থের স্থান দখল করে আছে ৭২৭টি। এত সংখ্যক বইয়ের মধ্যে একুশ ও ভাষা নিয়ে প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা মাত্র ৭-৮টি। এবারের মেলায় একুশ ও ভাষা নিয়ে প্রকাশনা সংস্থা আগামী প্রকাশ করেছে রফিকুল ইসলাম রচিত ‘একুশের শহীদেরা বাংলা ভাষার শহীদেরা’ ও ‘অমর একুশে ও শহীদ মিনার’। অবসর প্রকাশ করেছে সৌরভ সিকদারের ‘বাংলা ভাষা বাংলাদেশের ভাষা’। বসুন্ধরা প্রকাশ করেছে অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের ‘ভাষা আন্দোলনের কথা’ এবং অরূপ তালুকদার ও মিন্টু বসু রচিত ‘আমাদের ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস’। নালন্দা প্রকাশ করেছে এম আর মাহবুবের ‘একুশের স্মারক’। অনিন্দ্য প্রকাশ করেছে ভাষা সংগ্রামী আহমদ রফিকের ‘রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন : ইতিহাস ও অনুষঙ্গ’ ১ম, ২য় ও ৩য় খণ্ড। গ্রন্থমেলায় একুশের প্রকাশনা এত কম কেন- এমন প্রশ্নের উত্তরে প্রকাশনা সংস্থা তাম্রলিপির স্বত্বাধিকারী এ কে তারিকুল ইসলাম রনি বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘ভাষা আন্দোলন ও একুশ নিয়ে আমরা অনেক বেশি বই প্রকাশ করতে চাই, কিন্তু পাণ্ডুলিপি পাচ্ছি না। পাণ্ডুলিপির সংকটেই একুশের গ্রন্থমেলায় একুশের প্রকাশনা যৎসামান্য। ’ তার কথার সূত্র ধরে বাঁধন পাবলিকেশন্সের স্বত্বাধিকারী শেখ শাহারুল আলম শাহী জানান, পাণ্ডুলিপি সংকটে তারা একুশ ও ভাষা নিয়ে বেশি বই প্রকাশ করতে পারছেন না। একুশের গ্রন্থমেলায় একুশ ও ভাষার বইয়ের প্রকাশনার স্বল্পতা প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে ভাষা সংগ্রামী ও লেখক আহমদ রফিক বলেন, ‘লেখকরা কম লিখছেন, আর প্রকাশকরা কম প্রকাশ করছেন- বলেই মেলায় ভাষা আন্দোলনের বই কম। লেখক ও প্রকাশকদের মাঝে একুশ নিয়ে গভীর মমত্ববোধ নেই বলেই প্রকাশনার দিকে ভাষা আন্দোলন পিছিয়ে রয়েছে। সমগ্র জাতির কাছে ভাষা  আন্দোলন ও একুশের তাত্পর্য তুলে ধরতে হলে একুশের প্রকাশনা অনেক বেশি দরকার। ’

গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব-৩’ : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ অবলম্বনে গ্রাফিক নভেল ‘মুজিব-৩’ এসেছে অমর একুশে গ্রন্থমেলায়। বইটি প্রকাশ করেছে সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন (সিআরই)। এর প্রকাশক বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র রেদওয়ান মুজিব সিদ্দিক। গতকাল বিকালে সিআরইর স্টলে বইটির প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক, নভেলটির গ্রাফিক শিল্পী রাশাদ ইমাম তন্ময় প্রমুখ।

কনে দেখা আলোর অহং : বিগত সত্তর দশকের প্রতিনিধিত্বশীল কবি হাসান হাফিজের নতুন কবিতার বই ‘কনে দেখা আলোর অহং’ প্রকাশ করেছে সময় প্রকাশন। নান্দনিক প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। চার ফর্মার বইটির দাম ১২০ টাকা।

জীবন রহস্য : বাংলাদেশে হৃদরোগ চিকিৎসার পথিকৃৎ জাতীয় অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) আবদুল মালিক রচিত ‘জীবন রহস্য’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। গতকাল রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। জীবন রহস্য বইটিতে ব্রিটিশ আমল থেকে স্বাধীন বাংলাদেশ পর্যন্ত কিছু ইতিহাস, চিকিৎসা বিজ্ঞান, শিক্ষা, মানব ও বিশ্ব সৃষ্টির রহস্য, ধর্ম, মানবিকতার নানা দিক সহজ উপস্থাপনার মাধ্যমে তুলে ধরেছেন লেখক। মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সাবেক প্রধান বিচারপতি মো. মোজাম্মেল হোসেন, দৈনিক সমকাল সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, কথাসাহিত্যিক ও জাতীয় শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান সেলিনা হোসেন, কবি আল মুজাহিদী, ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের মহাসচিব অধ্যাপক খন্দকার আবদুল আউয়াল, ইত্তেফাকের স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডা. নজরুল ইসলাম মোড়ল, মাসিক গোলাপকুঁড়ির সম্পাদক মুহাম্মদ মুনতাসির আলী প্রমুখ।

নতুন বই : বাংলা একাডেমির জনসংযোগ ও উপবিভাগ থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী গতকাল মেলার ১৯তম দিনে ১১৫টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য বইগুলো হলো নওরোজ কিতাবিস্তান থেকে প্রকাশিত তাইসির রেজার নাটকের বই ‘লাল পদ্ম’ ও কাব্যগ্রন্থ ‘খেয়ালী মনের কাব্য’। ইমন প্রকাশনী প্রকাশ করেছে মো. রফিকুল ইসলাম মিঞার ‘বঙ্গবন্ধুর সপরিবারে হত্যা ও সন্ধ্যা রাতের আহার’। বাঁধন পাবলিকেশন্স প্রকাশ করেছে আবদুর রশিদ আকন্দের ‘লাল সুতো’। আগন্তুক এনেছে আহসান হামিদের কাব্যগ্রন্থ ‘উলঙ্গ শহর’ ইত্যাদি।

মূল মঞ্চ : গতকাল বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘যোগীন্দ্রনাথ সরকারের সার্ধশতজন্মবার্ষিক’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আবুল মোমেন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন রফিকুল হক, আলী ইমাম এবং সুজন বড়ুয়া। সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক হায়াৎ মামুদ। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল আমানুল হকের পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘বাংলাদেশ ব্যালে ট্রুপ’-এর পরিবেশনা। এ ছাড়া সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী লাকী সরকার, বদিয়ার রহমান, অনিমা মুক্তি গোমেজ, শরণ বড়ুয়া, শাপলা পাল এবং মো. মুরাদ হোসেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow