Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : সোমবার, ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০৯
বঙ্গবন্ধুর ছবিই গায়েব!
নিজামুল হক বিপুল
বঙ্গবন্ধুর ছবিই গায়েব!
অনুষ্ঠানের সময় ঢেকে দেওয়া হয়েছে বঙ্গবন্ধুর ছবি

রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক কেন্দ্রের (বিআইসিসি) ‘হল অব ফেম’-এ বিভিন্ন অনুষ্ঠান হয় মঞ্চের পেছনে টানানো বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিকে আড়াল করে। শুধু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কোনো অনুষ্ঠান হলেই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিটি দৃশ্যমান থাকে।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রটি বর্তমানে পরিচালনা করছে সরকারি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ সার্ভিসেস লিমিটেড (বিসিএল)। তারা গত ২০১২ সাল থেকে এটি ১০ বছরের জন্য ইজারা নিয়েছে। এই সম্মেলন কেন্দ্রে যে কয়টি হল রয়েছে তার মধ্যে সবচেয়ে বড় হল হচ্ছে ‘হল অব ফেম। ’ সঙ্গত কারণেই একমাত্র এই হলে মঞ্চের পেছনে একবারে ওপরের দিকে থাকা এলইডির ওপর বঙ্গবন্ধুর একটি প্রতিকৃতি টানানো রয়েছে। বিআইসিসি সূত্র জানায়, মূলত সম্মেলন কেন্দ্রের গুরুত্ব বিবেচনায় এই হলেই বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি টানানো হয়। কারণ এই সম্মেলন কেন্দ্রে যেসব বড় অনুষ্ঠান হয় তার সবগুলোই হয় মূলত ‘হল অব ফেম’-এ। গত দু্ই সপ্তাহে বঙ্গবন্ধু সম্মেলন কেন্দ্রের ‘হল অব ফেম’ এর দুটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে দেখা গেছে, দুটিতেই বিশাল কালো কাপড় দিয়ে ‘বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতি ঢেকে দিয়ে আয়োজকরা অনুষ্ঠান আয়োজন করেছেন। বিআইসিসির সূত্রগুলো বলছে, যেভাবে কাপড় দিয়ে ‘বঙ্গবন্ধুু’র ছবি ঢেকে দেওয়া হয়েছে তা কোনোভাবেই সম্ভব নয়, যদি না কর্তৃপক্ষ অনুমতি না দেয়। গত ১০ ফেব্রুয়ারি হল অব ফেম-এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে একটি মোবাইল অপারেট কোম্পানি। এর পরের সপ্তাহে অর্থাৎ গত ১৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠান করে ব্রিটিশ কাউন্সিল। এই দুই অনুষ্ঠানেই আয়োজকরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি কালো কাপড়ে ঢেকে তারপর অনুষ্ঠান করেন। কিন্তু ‘বঙ্গবন্ধু’র প্রতিকৃতি হল অব ফেম-এর মঞ্চের পেছনে ওপর দিকে যে স্থানটিতে রাখা হয়েছে সেটি অনুষ্ঠানের বিভিন্ন দিক বিবেচনায় নিয়েই রাখা হয়েছে। যাতে অনুষ্ঠানের কোনো বিঘ্ন না ঘটে, আবার বঙ্গবন্ধুর ছবিও যাতে ঢাকতে না হয়। জানতে চাইলে বিএসএল-এর সচিব আবুল মুনসুর গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, এরকম যদি কোনো ঘটনা ঘটে থাকে তাহলে সেটা অত্যন্ত দুঃখজনক। এ ব্যাপারে অবশ্যই দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পরক্ষণেই তিনি বলেন, বিষয়টি বিএসএল দেখলেও সেখানে নির্দিষ্ট লোক দায়িত্ব পালন করেন। তিনি পরামর্শ দেন বিআইসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রেজওয়ান মারুফের সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য। জানতে চাইলে রেজওয়ান মারুফ বলেন, তিনি ১৫ দিন ধরে অসুস্থ। হাসপাতালে। তবে বলেন, আপনি যে অভিযোগটি তুলেছেন সেটি গুরুতর অভিযোগ। তিনি পরামর্শ দেন বিএসএল-এর মার্কেটিং বিভাগের পরিচালক শহিদুস সাদেক তালুকদারের সঙ্গে কথা বলার। জানতে চাইলে শহিদুস সাদেক বলেন, তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

up-arrow