Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৯
প্রানের মেলা প্রতিদিন
চলছে শুধুই বই কেনা
মোস্তফা মতিহার
চলছে শুধুই বই কেনা

অন্য দিনের মতো গতকাল উপচেপড়া ভিড় ছিল না সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও বাংলা একাডেমির বইমেলায়। দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে অপেক্ষাও করতে হয়নি কাউকে।

পরিবেশ ছিল একেবারেই ছিমছাম ও গোছালো। তবে বই কেনার জোয়ার ছিল অনেক বেশি। দিনটিতে শুধুই চলেছে বই কেনা।

দেখা গেছে, এদিন বয়স ও রুচিবোধ অনুযায়ী স্টল ঘুরে ঘুরে প্রবন্ধ, ইতিহাস, উপন্যাস, গল্প, কবিতা, সায়েন্সফিকশন, মুক্তিযুদ্ধ, রম্য/ধাঁধা, কৌতুক, রান্না, রূপচর্চা, ভ্রমণসহ নানা বইয়ে ব্যাগ ভর্তি করে বইপ্রেমীরা মেলা ছাড়েন। সত্যিকারের ক্রেতারা মেলায় এসেছেন আর বই কিনছেন, এতে দারুণ খুশি বিভিন্ন স্টলের বিক্রয়কর্মীরা। চারুলিপির স্বত্বাধিকারী হুমায়ূন কবির বলেন, প্রকাশনা ও বিক্রির দিক দিয়ে এবারের মেলা অন্যবারের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। লঙ্কাপুরীর দিনরাত্রি : পাঞ্জেরি পাবলিকেশন্স প্রকাশ করেছে তরুণ কবি ও কথাসাহিত্যিক নওশাদ জামিলের ভ্রমণগ্রন্থ ‘লঙ্কাপুরীর দিনরাত্রি’। শ্রীলঙ্কার ইতিহাস, ঐতিহ্য, পুরাকীর্তি, গ্যালারিসহ নানা নিদর্শন বইটিতে শৈল্পিকভাবে তুলে ধরেছেন লেখক। প্রচ্ছদ করেছেন শিবু কুমার শীল।

ছাপা ঝকঝকে, বাঁধাই উন্নত। ভিতরে আছে সংশ্লিষ্ট কিছু আলোকচিত্র। ১২৮ পৃষ্ঠার বইটির দাম ২৩০ টাকা। সন্ধ্যায় ফেরার সময় : কাজী আলিম-উজ-জামানের গল্পগ্রন্থ ‘সন্ধ্যায় ফেরার সময়’-এর তাবৎ বিষয় যেন গণমানুষেরই মনের কথাকে অম্লমধুর রম্য ভাষায় গল্পের জাল বোনে। এটি এক অর্থে লেখক হিসেবে গল্পকারের সামাজিক দায়িত্ববোধ তথা বিপুল জনগোষ্ঠীর সার্বিক মুক্তির ভাষা চিত্ররূপ দান করেছে। গণমানুষের প্রত্যাশা এবং প্রাপ্তির বিস্তর ব্যবধানকে তিনি যেমন ফুটিয়ে তুলেছেন তেমনি জুতসই শ্লেষের মাধ্যমে করেছেন তীব্র প্রতিবাদ। সাফল্যের মূলমন্ত্র : মানুষের ব্যক্তি ও পেশাগত জীবনে যে কোনো কাজে সাফল্যের পেছনে প্রয়োজন সঠিক পরিকল্পনা। শুদ্ধ পরিকল্পনাই ক্যারিয়ার গঠনে ভূমিকা রাখে। এসব বিষয় প্রাধান্য দিয়ে অন্বেষা প্রকাশন থেকে বের হয়েছে শামছুল হক রাসেলের ‘সাফল্যের মূলমন্ত্র’ বইটি। স্বপ্নবোনা মন : মেলায় এসেছে তরুণ লেখক মুহাম্মদ মিজানুর রহমানের গল্পগ্রন্থ ‘স্বপ্নবোনা মন’। বইটি এনেছে সূচীপত্র প্রকাশনী, স্টল নম্বর ৬২১। নান্দনিক প্রচ্ছদে মোড়া সময়ের একটি ব্যতিক্রমী প্রকাশনা ‘স্বপ্নবোনা মন’। মেলায় দুই মন্ত্রী : গতকাল মেলায় এসেছিলেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তারা বইমেলা ঘুরে দেখেন। পরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে যোগ দেন। নতুন বই : মেলার ২২তম দিনে গতকাল ৮২টি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো অন্যপ্রকাশ থেকে রাবেয়া খাতুনের মুক্তিযুদ্ধের বাছাই গল্প, হাতেখড়ি থেকে মোহাম্মদ জিল্লুর রহমানের বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ, কোয়ান্টাম থেকে আবদুল্লাহ আবু সায়ীদের ভাঙো দুর্দশার চক্র, ঐতিহ্য থেকে ড. সন্জীদা শাহরিয়ারের মনোদৈহিক প্রভাব, সৈয়দ আবিদ রিজভীর মোগল সম্রাট শাহজাহান, পাঞ্জেরি থেকে আনিসুল হকের আমার একটা পোষা দৈত্য আছে, বইপত্র থেকে মোহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামানের ‘রাজঘাট থেকে রাজপাড়া’ ইত্যাদি। মূলমঞ্চ : বিকাল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঠ্যসূচি : বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি’ শীর্ষক আলোচনা। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক জিনাত হুদা অহিদ। আলোচনায় অংশ নেন মো. আবুল কাসেম ও ড. শাহিনুর রহমান। সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল অধ্যাপক শফিউল আলমের পরিচালনায় সাংস্কৃতিক সংগঠন গেন্ডারিয়া কিশলয় কচিকাঁচার মেলার সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এ ছাড়া সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী কাদেরী কিবরিয়া, তপন মাহমুদ, শামা রহমান, মহিউজ্জামান চৌধুরী, নীলোত্পল সাধ্য ও শিখা আহমাদ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow