Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪৩
প্রানেরমেলা প্রতিদিন
‘বদলে যাওয়া বাংলাদেশের গল্প’র মোড়ক উন্মোচন
সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

এবারের গ্রন্থমেলায় যুবলীগের প্রকাশনা সংস্থা যুবজাগরণ প্রকাশ করেছে যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর বই ‘বদলে যাওয়া বাংলাদেশের গল্প’। গতকাল বিকালে বাংলা একাডেমিতে অবস্থিত যুবজাগরণের স্টলের সামনে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

সংগঠনের চেয়ারম্যান ও বইটির লেখক মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরীর সভাপতিত্বে মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য নুরুল ইসলাম ঠাণ্ডু, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ, আরটিভির সিইও সৈয়দ আশিক রহমান, যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. ফারুক হোসেন, আবদুস ছাত্তার মাসুদ, মো. আতাউর রহমান, জাকির হোসেন খান, মো. আনোয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সম্পাদক মনজুর আলম শাহীন, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহা. বদিউল আলম, ফারুক হোসেন তুহিন, সম্পাদক মণ্ডলীর সদস্য কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, শাহ জালাল, সাজ্জাদ হায়দার চৌধুরী লিটন, শ্যামল কুমার রায়, ঢাকা মহানগর উত্তরের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সোহরাব হোসেন স্বপন, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজা প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, যুবলীগ এখন আর শুধু মিছিল-মিটিংয়ে ব্যস্ত নয়, জ্ঞানচর্চায়ও নিয়োজিত। প্রজ্ঞা, মেধা ও মননের সঙ্গে যুবলীগ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে উন্নীত হয়েছে। তিনি আরও বলেন, জঙ্গিবাদ দমন করে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। এ সময় তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিমসহ অন্য অতিথিদের হাতে তার প্রকাশিত বই তুলে দেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আগামী নির্বাচন হবে অশুভ শক্তিকে পরাজিত করার লড়াই। ন্যায়ের পক্ষে অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই। জ্বালাও-পোড়াওয়ের বিরুদ্ধে শান্তি প্রতিষ্ঠার লড়াই। এই লড়াইয়ে জয়লাভের জন্য যুবলীগসহ মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সব শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।   আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা সম্পর্কে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরন্তর সংগ্রামের ফসল আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। কারণ প্রথমে বঙ্গবন্ধু এবং এরপর তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় ভাষণ দান করেন।

up-arrow