Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : বুধবার, ৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:২২
এমপি লিটন হত্যা
কাদের খান ফের রিমান্ডে
গাইবান্ধা প্রতিনিধি

এবার অস্ত্র মামলায় এক দিনের রিমান্ড হলো এমপি লিটন হত্যার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে গ্রেফতার সাবেক সংসদ সদস্য ডা. আবদুল কাদের খানের। গাইবান্ধার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মইনুল হাসান ইউসুব গতকাল এ আদেশ দেন।

অবৈধ অস্ত্র রাখার দায়ে অস্ত্র আইনে করা একটি মামলায় পুলিশ গতকাল তাকে আদালতে হাজির করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। আদালতের পিপি অ্যাডভোকেট শফিকুল ইসলাম শফিক বলেন, এর আগে ২২ ফেব্রুয়ারি কাদের খানকে লিটন হত্যা মামলায় আদালত ১০ দিনের রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দিয়েছিল। কিন্তু রিমান্ডে থাকা অবস্থায় চতুর্থ দিন ২৫ ফেব্রুয়ারি তিনি এমপি লিটনকে হত্যার বিষয়ে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিলে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। কাদের খানের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ তার বাড়ি থেকে লিটন হত্যায় ব্যবহূত অস্ত্র, গুলি ও ম্যাগাজিন উদ্ধার করে। কিন্তু এখন হত্যায় ব্যবহূত আরও একটি অবৈধ অস্ত্র উদ্ধারের প্রয়োজনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ আদালতে তার রিমান্ডের আবেদন করে। আদালত তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। গাইবান্ধার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. খায়রুল আলম বলেন, এমপি লিটন হত্যায় তিনটি অস্ত্র ব্যবহার করা হয়। এর মধ্যে কাদের খান একটি অস্ত্র থানায় জমা দেন। আরেকটি অস্ত্র কাদের খানের দেওয়া তথ্যমতে পুলিশ তার বাড়ির উঠানের গর্ত থেকে উদ্ধার করে। কিন্তু আরও একটি অস্ত্র এখনো উদ্ধার হয়নি। সে অস্ত্র সম্পর্কে কাদের খান এর আগে জিজ্ঞাসাবাদে কোনো তথ্য দেননি। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে করা মামলায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ড চাওয়া হলে আদালত এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে। এর আগে ২১ ফেব্রুয়ারি বিকালে বগুড়া শহরের নিজের গরীব শাহ ক্লিনিক থেকে কাদের খানকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই রাতেই তাকে গাইবান্ধায় আনা হয়। পরদিন কাদের খানকে ১০ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow