Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১০ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ৯ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৪৭
অষ্টম কলাম
তরুণীর অনাপত্তিতে জামিন মিলল ক্রিকেটার সানির
আদালত প্রতিবেদক

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলায় জাতীয় দলের ক্রিকেটার আরাফাত সানিকে এক মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছে আদালত। গতকাল ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. কামরুল হোসেন মোল্লা এ আদেশ দেন।

এ বিষয়ে ওই আদালতের সরকারি কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল জানান, সানির স্ত্রী বলে দাবি করা ওই তরুণী জামিন শুনানির সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। তিনি আদালতকে বলেছেন, সানির সঙ্গে তার সমঝোতা হয়েছে। তাই এ মামলায় সানি জামিন পেলে তার (তরুণী) কোনো আপত্তি নেই। শুনানি শেষে দুই পক্ষের সমঝোতার ভিত্তিতেই বিচারক আগামী ১০ এপ্রিল পর্যন্ত অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দিয়েছেন। এদিকে জামিন পেলেও মুক্তি পাচ্ছেন না ক্রিকেটার আরাফাত সানি। কারণ রাজধানীর মোহাম্মদপুর থানায় করা তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিসহ আরও দুটি মামলা রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ওই মামলায় অভিযোগ করা হয়, আরাফাত সানির সঙ্গে ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর ওই তরুণীর বিয়ে হয়। বিয়ের পর তারা বাসা ভাড়া নিয়ে একসঙ্গে থেকেছেন। একসঙ্গে তারা বিদেশে  বেড়াতেও গেছেন। ওই তরুণীর অভিযোগ, সানির পরিবার তাদের বিয়ে মেনে না নেওয়ায় তাকে তুলে নেওয়া হয়নি। একপর্যায়ে সানি তার কাছে ২০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন এবং টাকা দিলে ঘরে তুলে নেবেন বলে জানান। যৌতুকের দাবিতে তাকে মারধরও করা হয়। মামলার আরজিতে আরাফাত সানির মা নার্গিস বেগমকেও আসামি করার আবেদন করেন ওই তরুণী। এ ছাড়া তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের মামলায় অভিযোগ করা হয়, সাত বছর আগে পরিচয় ও ঘনিষ্ঠতার সূত্র ধরে ২০১৪ সালের ৪ ডিসেম্বর উভয়ের পরিবারকে অবহিত না করেই সানিকে তিনি গোপনে বিয়ে করেন। কিন্তু বিয়ের পর তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে না নিয়ে আরাফাত সানি সময়ক্ষেপণ করতে থাকেন। এমনকি তিনি সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রস্তাব দিলেও সানি তাতে কান দেননি। এরপর গত ১২ জুন রাত ১টা ৩৫ মিনিটে সানি তার নাম ব্যবহার করে নিজের মোবাইল ফোন নম্বর দিয়ে একটি ভুয়া ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেন এবং ওই আইডি দিয়ে তরুণীর নিজস্ব অ্যাকাউন্টে তাদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের কিছু ছবি ও একক ছবি ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠিয়ে ওই তরুণীকে নানারকম হুমকি দিতে থাকেন। এ ঘটনায় গত ৫ জানুয়ারি আরাফাত সানির বিরুদ্ধে এ মামলা করেন ওই তরুণী। পরে এ মামলায় সানিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই তরুণী সানির বিরুদ্ধে আদালতে আরও দুটি মামলা করেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow