Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২১ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২৩:২৯
অর্থনৈতিক জোনে বদলাবে দেশ
মাইলফলক হবে ভবিষ্যতের —— কাজী আকরাম
অর্থনৈতিক জোনে বদলাবে দেশ

দেশজুড়ে হচ্ছে শতাধিক অর্থনৈতিক জোন। ব্যাপক শিল্পায়ন ও বিপুল কর্মসংস্থানের টার্গেটে গড়ে তোলা হচ্ছে এগুলো।

ব্যবসায়ী নেতারা বলছেন, এসব অর্থনৈতিক জোনে কার্যক্রম শুরু হলে বদলে যাবে দেশের অর্থনৈতিক চিত্র। তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন রুহুল আমিন রাসেল

 

সারা দেশে ব্যাপক শিল্পায়নের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে ১০০ বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল বা স্পেশাল ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা করছেন, তা ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের জন্য মাইলফলক হয়ে থাকবে বলে মনে করেন এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমদ। তার মতে, গ্রামে গ্রামে শিল্প ছড়িয়ে পড়ছে। এই শিল্পই বাংলাদেশে আগামী দিনের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে সুবার্তা দেবে। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে মুঠোফোনে আলাপকালে এফবিসিসিআইর সাবেক এই সভাপতি আরও বলেন, আগে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি বেশি অর্জিত হতো কৃষি খাত থেকে। এখন আসে সেবা ও শিল্প খাত থেকে। শিল্প বিপ্লবের মাধ্যমে জার্মানি তাদের প্রবৃদ্ধি বাড়িয়ে বিশ্বের উন্নত দেশে পরিণত হয়েছে। জার্মানিতে যে বড় বড় শিল্প-কারখানা আছে তাই তাদের জিডিপিতে সবচেয়ে বেশি অবদান রাখে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের আছে বিশাল যুবশক্তি। এই কর্মক্ষম বিশাল জনশক্তির জন্য প্রয়োজন কর্মসংস্থান। প্রধানমন্ত্রীর উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত শত অর্থনৈতিক অঞ্চল সেই কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা দেবে। কারণ, ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলে এক কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে। এই কোটি মানুষ কেবলমাত্র কর্মক্ষমই হবে না, তাদের হাত দিয়ে অর্থনীতি প্রাণচাঞ্চল্যও বাড়বে। দেশের এই বিশিষ্ট ব্যবসায়ী নেতা আরও বলেন, ১০০ অর্থনৈতিক অঞ্চলের রূপকার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন থাকবেন না, আমরা যখন থাকব না, এমনকি বর্তমান প্রজন্মও যখন থাকবে না, তখন ভবিষ্যৎ বাংলাদেশের সম্পদ হিসেবে এই ইকোনমিক জোন মাইলফলক হয়ে থাকবে। সারা বিশ্ব তাকিয়ে আছে এখন বাংলাদেশের উন্নয়নের দিকে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার এখন গ্রামে গ্রামে শিল্প ছড়িয়ে দিচ্ছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow