Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : শনিবার, ১১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১০ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৩৯
রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন শুরু
সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক
রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন শুরু

‘মৃত্যুরে করিবে তুচ্ছ প্রাণের উৎসাহ’ স্লোগান নিয়ে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারে শুরু হলো জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত সম্মেলন ২০১৭। জাতীয় রবীন্দ্রসংগীত সম্মিলন পরিষদের আয়োজনে গতকাল সকালে কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তনে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন শিল্পী রফিকুন নবী।

সকালের পর্বের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সম্মিলন পরিষদের সভাপতি ও রবীন্দ্র গবেষক ড. সন্্জীদা খাতুন। স্বাগত বক্তব্য দেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লাইসা আহমেদ লিসা। শুরুতেই শিল্পীরা সম্মেলক কণ্ঠে পরিবেশন করেন ‘সর্ব খর্বতারে দহে তব ক্রোধদাহ’। সভাপতির বক্তৃতায় ড. সন্্জীদা খাতুন বলেন, ‘ধর্মের নামে ক্ষমতা দখলদারদের হাত থেকে আমাদের সংস্কৃতিকে যে করেই হোক বাঁচাতে হবে। পরিপূর্ণ বাঙালি হওয়ার প্রত্যয়ে রবীন্দ্রচর্চা অব্যাহত রাখতে হবে। প্রাণের ভিতর দিয়ে মানুষ বেঁচে থাকে। সেই উৎসাহেই আমরা সব প্রতিকূলতা এড়িয়ে এ সম্মেলনকে এগিয়ে নিয়ে যাব। রবীন্দ্রনাথই আমাদের নিরন্তর প্রেরণার উৎস। ’ কাল শেষ হবে তিন দিনের এই সম্মেলন।

শাকিলে বিমোহিত সুরপিয়াসীরা : ফাগুনের আগুন লাগা সন্ধ্যায় সুরপিয়াসীরা মজেছিলেন খায়রুল আনাম শাকিলে। তাল, লয় ও ছন্দের শৈল্পিকতায় সুরের সমঝদারদের হৃদয়ে অনুরণন তুললেন নজরুলসংগীতের এই জাদুকর। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম থেকে শুরু করে অতুল প্রসাদ, ডি এল রায়, রজনীকান্ত সেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর সবার গানই নিজের কণ্ঠে তুলে মুগ্ধ করলেন মিলনায়তনভর্তি দর্শক-শ্রোতাদের। গতকাল সন্ধ্যায় জাতীয় জাদুঘরে অনুষ্ঠিত হয় শিল্পী খায়রুল আনাম শাকিলের এই একক সংগীতসন্ধ্যা।

মুক্তিযুদ্ধের আবৃত্তি উৎসব : আবৃত্তির সংগঠন বাকশিল্পাঙ্গনের আয়োজনে ধানমন্ডির রবীন্দ্রসরোবরে শুরু হলো ‘শেকল ভাঙ্গার পদ্য’ শীর্ষক মুক্তিযুদ্ধের দুই দিনব্যাপী আবৃত্তি উৎসব। যৌথভাবে এর উদ্বোধন করেন অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ। অনুষ্ঠানের শুরুতেই জাতীয় সংগীত ও গণসংগীত পরিবেশন করে অঙ্কন শিক্ষালয় ও সংস্কৃতি কেন্দ্র। উদ্বোধনী দিনে দলীয় আবৃত্তি পরিবেশন করে শিশুদের দল মৈত্রী শিশু দল ও আয়োজক আবৃত্তি দল। সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, আবৃত্তিশিল্পী সৈয়দ হাসান ইমাম, আশরাফুল আলম, কাজী আরিফ, পঞ্চানন চৌধুরী, মানবেন্দ্র বটব্যাল, ডালিয়া আহমেদকে অনুষ্ঠানে সম্মাননা জানানো হয়।

আজ শেষ হবে দুই দিনের এ উৎসব।

আলিয়ঁস ফ্রঁসেজে ‘আত্মপ্রকাশ’ শীর্ষক প্রদর্শনী : শিল্পী ও অধ্যাপক সিদ্ধার্থ তালুকদারের চিত্রকর্ম নিয়ে আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার লা গ্যালারিতে শুরু হলো ‘আত্মপ্রকাশ’ শীর্ষক প্রদর্শনী। গতকাল বিকাল সাড়ে ৫টায় শুরু হওয়া এ প্রদর্শনীর উদ্বোধনীতে প্রধান অতিথি ছিলেন শিল্পী রফিকুন নবী। আলিয়ঁস ফ্রঁসেজ দো ঢাকার পরিচালক ব্রুনো প্লাসের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন শিল্পসমালোচক অধ্যাপক মইনুদ্দীন খালেদ ও বিশিষ্ট শিল্পী অধ্যাপক নিসার হোসেন। সোম থেকে বৃহস্পতিবার বিকাল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং শুক্র ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টা এবং বিকাল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি সব শ্রেণির দর্শনার্থীর জন্য উন্মুক্ত থাকবে। ১৮ মার্চ শেষ হবে ৩৫টি চিত্রকর্ম দিয়ে সাজানো এ প্রদর্শনী।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow