Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : সোমবার, ১৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১২ মার্চ, ২০১৭ ২৩:৫৪
পরিবেশ আছে উদ্যোগ নেই
—— সাইফুর রহমান সোহাগ
নিজস্ব প্রতিবেদক
পরিবেশ আছে উদ্যোগ নেই

ছাত্রলীগের সভাপতি মো. সাইফুর রহমান সোহাগ বলেছেন, ডাকসুসহ প্রতিটি ছাত্র সংসদের নির্বাচন চায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। এটা ছাত্রলীগের প্রাণের দাবি।

আমরা কখনোই এই নির্বাচনের বিপক্ষে ছিলাম না। তিনি উল্লেখ করেন, ১৯৯০ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যবাহী বঙ্গবন্ধু হলে ছাত্রদলের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের পর ছাত্রসংসদ নির্বাচন বন্ধ করা হয়। তারপর থেকে আর দেশের গৌরবগাথা ছাত্র সংসদের নির্বাচন হয়নি। কিন্তু এখন ছাত্র সংসদ নির্বাচন করার মতো যথেষ্ট পরিবেশ বজায় রয়েছে। তবে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। তিনি বলেন, অতীতের মতো ক্যাম্পাসে ক্যাম্পাসে অস্ত্রের ঝনঝনানি নেই, নিয়মিত ক্লাস হয়, সব গণতান্ত্রিক ছাত্র সংগঠনগুলো রাজনীতি করছে। বাংলাদেশ প্রতিদিন-এর সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময়ই নির্বাচনের পক্ষে। এই সংগঠনটি জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে গড়া ঐতিহ্যবাহী সংগঠন। জাতির পিতার নেতৃত্বে স্বাধীনতা আন্দোলনসহ প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে ছাত্রলীগ ভূমিকা রেখেছে। আমাদের মূল সংগঠন আওয়ামী লীগও নির্বাচনমুখী দল। একমাত্র ১৯৯৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি ভোটারবিহীন নির্বাচন ছাড়া প্রতিটি নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। তিনি বলেন, ছাত্র সংসদ নির্বাচনই হচ্ছে নেতা তৈরির হাতিয়ার। নিয়মিত ছাত্রসংসদ নির্বাচন হলে নিজেদের মধ্যে যেমন নেতৃত্ব তৈরি হওয়ার প্রতিযোগিতা হবে—তেমনি ছাত্র সমাজের গ্রহণযোগ্য ছাত্রনেতারা নির্বাচিত হবে। ফলে নেতা তৈরি হবে। আমি ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই ডাকসু নির্বাচনের দাবি জানিয়ে প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলেছি। সোহাগ বলেন, সম্প্রতি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তনে অংশ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ডাকসু নির্বাচনের তাগিদ দিয়েছেন। আমরা রাষ্ট্রপতির এই উদ্যোগকে স্বাগত জানাই। সেই সঙ্গে প্রত্যাশা করি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন দ্রুততম সময়ের মধ্যে নির্বাচন দেবেন। ছাত্রলীগের কোনো সহায়তা প্রয়োজন হলে প্রস্তুত রয়েছি।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow