Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৬ মার্চ, ২০১৭ ২৩:০৬
পুড়ল কড়াইল বস্তি-কারখানা
নিজস্ব প্রতিবেদক
পুড়ল কড়াইল বস্তি-কারখানা
পুরান ঢাকার কিল্লার মোড় এলাকায় গতকাল ভোরে একটি প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে —বাংলাদেশ প্রতিদিন

রাজধানীতে পৃথক দুই অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে গেছে শতাধিক টিনশেড ঘর। এর মধ্যে মহাখালীর কড়াইল বস্তির আগুন ছিল ভয়াবহ।

বুধবার দিবাগত রাত ৩টায় এ আগুনে বস্তির প্রায় সাড়ে চারশ ঘর পুড়ে যায়। এরপর পুরান ঢাকার লালবাগের এক প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগে।

কড়াইল বস্তির আগুনে দগ্ধ হয়েছেন সোহাগ নামে এক বাসিন্দা। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে। গতকাল ভোর সোয়া ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট। জানা গেছে, ঘটনার পরই লালবাগের গিয়াসউদ্দিন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পাশের প্লাস্টিক কারখানার আগুনে অন্তত ২০টি টিনশেড ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। কড়াইল বস্তির ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে আছেন ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক (উন্নয়ন) আবদুল মান্নান, উপসহকারী পরিচালক আবদুল জলিল ও তেজগাঁওয়ের সিনিয়র স্টেশন অফিসার ফয়সালুর রহমান।

প্রত্যক্ষদর্শী ও বাসিন্দা সূত্রে জানা গেছে, প্রায় দেড়শ একর জায়গার ওপর গড়ে ওঠা কড়াইল বস্তিতে বাস করেন কয়েক হাজার মানুষ। রাত ৩টার দিকে সেখানে হঠাৎ আগুন লাগে। মুহূর্তেই তা আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। ফায়ার সার্ভিসের ২০টি ইউনিট ৫ ঘণ্টার চেষ্টায় আগুন নিভিয়ে ফেলে। ততক্ষণে গৃহহীন হয়েছেন সহস্রাধিক মানুষ। এর আগেও এ বস্তিতে দুবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছিল। রাজধানীর অভিজাত এলাকা গুলশান-বনানীর মাঝে গড়ে ওঠা এই বস্তির বাসিন্দাদের মধ্যে রয়েছেন তৈরি পোশাকশ্রমিক, রিকশাচালকসহ নিম্ন আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ। জানা গেছে, কড়াইল বস্তির জায়গাটির মূল মালিক বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল)। ২০১২ সালে বস্তির জমি পুনরুদ্ধারের চেষ্টা করে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। ওই সময় চার শতাধিক ঘর উচ্ছেদ করা হয়েছিল। এর প্রতিবাদে আন্দোলনে নামেন বস্তিবাসীরা। ফলে স্থগিত করা হয় উচ্ছেদ অভিযান। ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের পরিদর্শক পলাশ চন্দ্র মদন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, কড়াইল বস্তির অগ্নিকাণ্ডের কারণ তদন্তসাপেক্ষে বলা যাবে। আর বৈদ্যুতিক শটসার্কিটের কারণে কেল্লার মোড় এলাকার আরএনডি রোডের প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগে। সেখানে ফায়ার সার্ভিসের আটটি ইউনিট কাজ করে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পুড়ে যাওয়া ঘরগুলোয় প্লাস্টিক সামগ্রী ও রাসায়নিক পদার্থ ছিল।

up-arrow