Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ জুলাই, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ জুলাই, ২০১৭ ২৩:৩৪
কৃষি সংবাদ
কুষ্টিয়ায় বিষমুক্ত লাউয়ের আবাদ
জহুরুল ইসলাম, কুষ্টিয়া
কুষ্টিয়ায় বিষমুক্ত লাউয়ের আবাদ

কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলায় শুরু হয়েছে বিষমুক্ত লাউয়ের আবাদ। অন্য ফসলের তুলনায় উৎপাদন খরচ কম হওয়ায় এই সবজি চাষের দিকে ঝুঁকছেন কৃষকরা।

ভালো ফলনের পাশাপাশি কাঙ্ক্ষিত দাম পাওয়ায় এ উপজেলায় দিন দিন বিস্তার লাভ করছে লাউয়ের আবাদ।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালে মিরপুর উপজেলার ফুলবাড়িয়া গ্রামের হামিদুল স্বল্প পরিসরে লাউয়ের আবাদ শুরু করেন। প্রথম বছরে লাউ বিক্রি করে ভালো দাম পান তিনি। সেই সাফল্যে অনুপ্রাণিত হয়ে এ বছর তিন বিঘা জমিতে লাউ চাষ করেছেন। কৃষি বিভাগের পরামর্শে লাউ খেতের ক্ষতিকর পোকা দমনের জন্য তিনি স্বল্প খরচে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করছেন। এতে একদিকে যেমন নিরাপদ সবজি উৎপাদন হচ্ছে, অন্যদিকে বেঁচে যাচ্ছে কীটনাশক খরচ। কৃষক হামিদুল ইসলাম জানান, এরইমধ্যে তিনি তিন বিঘা জমি থেকে প্রায় ৬০ হাজার টাকার লাউ পেয়েছেন। তার আশা আরও ৫০ হাজার টাকার লাউ বিক্রি করতে পারবেন। অন্য ফসল আবাদে যে পরিমাণ সার লাগে, তার চেয়ে অনেক কম সার প্রয়োগ করেই লাউয়ের ভালো ফলন পাওয়া যাচ্ছে। এছাড়া অন্য ফসলের ক্ষেতে নিড়ানি দেওয়াসহ অন্য পরিচর্যায় বেশ টাকা খরচ হয়। কিন্তু লাউগাছ একবার মাচায় উঠে গেলে আগাছা দমনে কোনো নিড়ানি লাগে না। এ কারণেও লাউ চাষ তুলনামূলকভাবে লাভজনক একটি ফসল। হামিদুলের এ সাফল্য থেকে এলাকার আরও বেশ কয়েকজন কৃষক চলতি মৌসুমে লাউয়ের চাষ করেছেন। এদের একজন আবদুল জলিল জানান, এবার তিনি দেড় বিঘা জমিতে লাউ চাষ করেছেন। বর্তমানে বাজারে লাউয়ের চাহিদা অনেক। এরইমধ্যে তিনি ৩০ হাজার টাকার লাউ বিক্রি করেছেন। বিষ প্রয়োগের পরিবর্তে নতুন এ পদ্ধতি ব্যবহার করে দারুণ সুফল পাচ্ছেন তিনি। জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক ড. শাহাবুদ্দিন জানান, পোকা মাকড় দমনে নানা ধরনের কীটনাশক ব্যবহার করার ফলে দেশে উৎপাদিত সবজি মানবদেহের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ। এ কারণে তারা স্থানীয় কৃষকদের লাউসহ অন্য সবজি বিষমুক্ত উপায়ে উৎপাদনের জন্য কৃষকদের উৎসাহিত করছেন। এতে সাড়া মিলছে বেশ। তিনি জানান, এ বছর মিরপুর উপজেলায় ২৫ হেক্টর জমিতে লাউয়ের আবাদ হয়েছে।

up-arrow