Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৭ এপ্রিল, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ এপ্রিল, ২০১৮ ২৩:০৭
হাতিয়ায় বাড়িতে ঢুকে গুলি, শিশু নিহত হাসপাতালে বাবা
নোয়াখালী প্রতিনিধি
হাতিয়ায় বাড়িতে ঢুকে গুলি, শিশু নিহত হাসপাতালে বাবা

নোয়াখালীর হাতিয়ায় আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জেরে প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসীরা বাড়িতে ঢুকে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রকে গুলি করে হত্যা করেছে। এ সময় শিশুটির বাবাও গুলিবিদ্ধ হন। এনিয়ে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ওয়ালী উল্লাহর অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। রবিবার রাতে হাতিয়া পৌরসভার খবির মিয়ার বাজার সংলগ্ন উত্তর বেজু গালিয়া এলাকায় মিরাজ উদ্দিনের বাড়িতে গিয়ে সন্ত্রাসীরা এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। এ সময় মিরাজের একমাত্র ছেলে স্থানীয় রহমানিয়া ফাজিল মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র মিশকাতুর রহমান নীরব পড়ার টেবিলে বসে পড়াশোনা করছিল। এলোপাতাড়ি গুলিতে মিরাজ ও তার শিশু সন্তান নীরব গুলিবিদ্ধ হয়। গুরুতর অবস্থায় দুজনকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর নীরবকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

মিরাজ উদ্দিন জানান, গত পৌরসভা নির্বাচনে তিনি পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট ছাইফ উদ্দিন আহম্মেদের পক্ষে কাজ করেন। তখন থেকে সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌসের অনুসারীদের সঙ্গে তার বিরোধ সৃষ্টি হয়। এর জেরে ডালিম, জুয়েল, কাইউম, মুরাদ বেচু, মহিন ও জিন্নুর নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী তার বাড়িতে এসে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে। হাতিয়ার এমপি আয়েশা ফেরদৌসের স্বামী সাবেক এমপি মোহাম্মদ আলী জানান, রাজনৈতিকভাবে হেয় করার উদ্দেশে তার সমর্থকদের এই হত্যার সঙ্গে জড়ানো হচ্ছে। তার কোনো কর্মী বা সমর্থক এর সঙ্গে জড়িত নয়। নোয়াখালীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার একেএম জহিরুল ইসলাম জানান, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে।

 মিরাজকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

 ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের জন্য বিভিন্ন স্থানে অভিযান চলছে। এদিকে, এ ঘটনার প্রতিবাদে ও বিচারের দাবিতে গতকাল  দুপুর ১২টায় রহমানিয়া ফাজিল মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা  মানববন্ধন করে।

up-arrow