Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ১৬ মে, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৫ মে, ২০১৮ ২২:৫৩
আন্তর্জাতিক আদালতে উত্থাপনের আহ্বান
প্রতিদিন ডেস্ক
bd-pratidin

রোহিঙ্গা পরিস্থিতির ভিকটিমদের অবস্থা পরিদর্শনকারী নিরাপত্তা পরিষদের প্রতিনিধি দলের ব্রিফিং উপলক্ষে ১৪ মে এক সভা অনুষ্ঠিত হয় জাতিসংঘ সদর দফতরে। সভাপতিত্ব করেন পোল্যান্ডের স্থায়ী প্রতিনিধি। ব্রিফিংয়ে রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিষয়টি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে উত্থাপনের আহ্বান জানানো হয়। খবর এনআরবি নিউজের। জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের এই প্রতিনিধি দল বাংলাদেশ ও মিয়ানমার সফর করেন। ব্রিফিংটি তিনটি পর্বে ভাগ করে উপস্থাপিত হয়। কুয়েতের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মনসুর আল ওতায়িবি বাংলাদেশসংক্রান্ত অংশ উপস্থাপন করেন। কুয়েতের রাষ্ট্রদূত তার ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সংশ্লিষ্ট অন্যান্য উচ্চ পর্যায়ের সরকারি প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক এবং কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের বিষয়ে তথ্য উপস্থাপন করেন। মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গা নাগরিকদের মানবিক সহযোগিতা ও আশ্রয় প্রদানের জন্য তিনি নিরাপত্তা পরিষদ প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ সরকার ও জনগণকে সাধুবাদ জানান এবং ভূয়সী প্রশংসা করেন। এ ক্ষেত্রে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের আসন্ন বর্ষা মৌসুমে সহযোগিতার হাত আরও প্রসারিত করার প্রতি গুরুত্বারোপ করা হয়। তিনি রোহিঙ্গাদের প্রতি সংঘটিত সহিংসতাকে ‘জাতিগত নির্মূল’ অভিযান বলে অভিহিত করেন। এ ছাড়া শিশু, নারীসহ রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সংঘটিত সব সহিংসতার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের বিচারের আওতায় আনার জন্য মিয়ানমারের সরকারের প্রতি আহ্বান জানায় জাতিসংঘ পরিদর্শক দল। রোহিঙ্গাদের ওপর অত্যাচারের বিষয়টি আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে উত্থাপনের বিষয়টি উল্লেখ করেন কয়েকটি সদস্যরাষ্ট্রের প্রতিনিধি। ব্রিফিং শেষে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশ চীন, যুক্তরাষ্ট্র, সুইডেন, ফ্রান্স, কাজাখস্তান, ইকুয়েটোরিয়াল গিনি, রাশিয়ান ফেডারেশন, নেদারল্যান্ডস ও পোল্যান্ড বক্তব্য দেন। নিরাপত্তা পরিষদ প্রতিনিধি দলের সঙ্গে মতবিনিময়কারী রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নিরাপত্তা বাহিনী ভয়ভীতি প্রদর্শন করেছে বলে মন্তব্য করেন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের স্থায়ী প্রতিনিধিরা। নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যরাষ্ট্রসমূহ তাদের বক্তব্যে মানবতার বিরুদ্ধে এ ধরনের অপরাধ করে যাতে কেউ পার না পায় তা নিশ্চিত করার আহ্বান জানান। এ সংকট সমাধানে বাংলাদেশ, মিয়ানমার, জাতিসংঘসহ মিয়ানমারে নিযুক্ত জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূতের সঙ্গে সামনের দিনগুলোয় নিরাপত্তা পরিষদ আলোচনা অব্যাহত রাখবে মর্মে সুইডেনসহ কয়েকটি সদস্যদেশ তাদের বক্তব্যে উল্লেখ করেন। নিরাপত্তা পরিষদের সদস্যদেশের বাইরে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের স্থায়ী প্রতিনিধি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তা প্রদান এবং মিয়ানমারের সঙ্গে বিশ্বাসের ভিত্তিতে এই সমস্যার সমাধান করতে চান মর্মে উল্লেখ করেন জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন।

এই ব্রিফিং অনুষ্ঠান শেষে নিরাপত্তা পরিষদের দেশসমূহ একটি রুদ্ধদ্বার বৈঠকে মিলিত হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow