Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ৩১ আগস্ট, ২০১৮ ২৩:৩২

বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পথে যুবলীগ নেতাকে হাতুড়িপেটা

প্রতিদিন ডেস্ক

বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পথে যুবলীগ নেতাকে হাতুড়িপেটা

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার সময় সাবেক এক যুবলীগ নেতাকে বৃহস্পতিবার রাতে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। আহত আক্তারুজামান জামাল ফকিরের বাড়ি ভোজেশ্বর ইউনিয়নের পাচক গ্রামে। তিনি নড়িয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ছিলেন। তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বিঝারী ইউনিয়নের ইমান খোলা বাজারের মোড়ে হামলার শিকার হন জামাল। খবর বিডিনিউজের।

নড়িয়া থানার ওসি আসলাম উদ্দিন জানান, আহত জামালের ভাতিজা নিপুণ ফকির হামলার ঘটনায় ইতিমধ্যে একটি মামলা করেছেন। ভোজেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক        আলী আহমদ শিকদারের দুই ছেলে নয়ন শিকদার ও মুরাদ শিকদারসহ অজ্ঞাতপরিচয় ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন জামাল সাংবাদিকদের বলেন, রাতে বিঝারী ইউনিয়নের নয়গাঁও গ্রামের দিলু শেখের বাড়ির একটি বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে বেরিয়ে ইউসুফ চৌকিদারকে নিয়ে মোটরসাইকেলে করে বন্ধু জানে আলম চৌকিদারের বাড়ি যাচ্ছিলেন তিনি।  পথে আলী আহমদ শিকদারের ছেলে নয়ন শিকদার ও মুরাদ শিকদার এবং আরও কয়েক ব্যক্তি আমাদের গতিরোধ করে। পরে তারা ইউসুফকে আটকে রেখে লোহার রড ও হাতুড়ি দিয়ে আমাকে পিটিয়ে পালিয়ে যায়। জামালের ভাতিজা নিপুণ বলেন, হামলাকারীরা তার চাচার পকেট থেকে ৬০ হাজার টাকা, কাগজপত্র ও তিনটি এটিএম কার্ড নিয়ে গেছে। ‘পূর্ব শত্রুতার জেরে’ এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে নিপুণ অভিযোগ করলেও, কী নিয়ে এই শত্রুতা তা স্পষ্ট করেননি তিনি। নয়ন ও মুরাদের বাবা আলী আহমেদ বলেন, ‘রাতে বিয়েবাড়ি থেকে ফেরার পথে কে বা কারা জামালকে মেরেছে তা আমরা জানি না। আমাদের হয়রানি করার জন্য মিথ্যা অভিযোগ তোলা হচ্ছে।’


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর