Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫২
দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে গেল ৭ প্রাণ
রেলক্রসিংয়ে ট্রেন-বাস সংঘর্ষ
প্রতিদিন ডেস্ক
দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে গেল ৭ প্রাণ
রংপুরে গতকাল দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুমড়ে-মুচড়ে গেছে বাস। স্বজন হারিয়ে কান্না (নিচে) —বাংলাদেশ প্রতিদিন

রংপুরে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নারী ও শিশুসহ সাতজন নিহত ও ১৭ জন আহত হয়েছেন। চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ট্রেন-বাস সংঘর্ষে একজন নিহত এবং ২২ জন আহত এবং ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সীতাকুণ্ডে ট্রাকের ধাক্কায় মানসিক প্রতিবন্ধী এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। এ ছাড়া সড়ক দুর্ঘটনায় বগুড়ায় তিনজন নিহত ও ৪৫ জন আহত, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে এক নারী নিহত ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাজীপুরে লেগুনা উল্টে অন্তত ১০ যাত্রী আহত হয়েছেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর—         

রংপুর : গতকাল দুপুর সোয়া ১২টার দিকে রংপুর নগরীর সিও বাজার এলাকায় খান পেট্রলপাম্পের সামনে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কে দুটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই চারজন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনজনের মৃত্যু হয়। এ দুর্ঘটনায় আহত ১৭ জন রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। নিহতরা হলেন— নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার মৃত শহিদুল ইসলামের স্ত্রী নুর বানু (৪৪), ফুলকি বেগম (৫৫), একই জেলার সৈয়দপুর উপজেলার বোতলাগাড়ী গ্রামের আনোয়ার হোসেনের স্ত্রী অজিমন নেছা (৪৬), গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার তালুকবর্মণ এলাকার রুবেল মিয়ার স্ত্রী রোখসানা বেগম (২৪), পঞ্চগড়ের শাহিন মিয়া (১২), রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলার বালারহাট এলাকায় পুলিশ কনস্টেবল মামুনের স্ত্রী সুমি বেগম (২২) ও ঠাকুরগাঁওয়ের ধবলি এলাকার আবদুর রহমান (৭০)।

রংপুর সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইফুর রহমান সাইফ জানান, বগুড়া থেকে পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধাগামী বিআরটিসির একটি বাসের সঙ্গে ঠাকুরগাঁও থেকে রংপুরগামী রুবি পরিবহনের একটি বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

তদন্ত কমিটি : ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক রুহুল আমীন দুর্ঘটনার কারণ খতিয়ে দেখতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রশিদুল মান্নাফ কবিরকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করে দিয়েছেন। কমিটিকে সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

চট্টগ্রাম : চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের বারৈয়ারহাট রেলক্রসিং এলাকায় গতকাল ভোরে বিজয় ট্রেনের সঙ্গে এস আলম বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে বাসের এক যাত্রী নিহত এবং ২২ জন আহত যাত্রী হয়েছেন। নিহত সুনির্মল চাকমার (৫৫) বাড়ি খাগড়াছড়িতে। এ দুর্ঘটনায় রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। এ দুর্ঘটনার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম লাইনে রেল চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। লাইনের ওপর থেকে বাসটি সরিয়ে নেওয়ার এক ঘণ্টা পর ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়। কম্পিউটার বেইজ ইন্টার লগিং সিস্টেমের (সিবিআই) কারণে এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে রেলওয়ের সাবেক ও বর্তমান ঊর্ধ্বতন কয়েকজন কর্মকর্তা মত প্রকাশ করেন। আহতদের মধ্যে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৫ জন। এরা হচ্ছেন— উৎপল চাকমা (৪০), নিউটন চাকমা (২৫), কুসুম ত্রিপুরা (৬৫), মীনা চাকমা (৩৫), কল্লোল দেওয়ান (২৫), বাবু ত্রিপুরা (২৫), শংকর বিজয় (২৮), পংকজ বিজয় দেওয়ান (২৭), অমিত ত্রিপুরা (২৫), লিটন ত্রিপুরা (২৫), জেসিকা ত্রিপুরা (২৫), সুপ্রীতি ত্রিপুরা (২৭), আলমগীর কবীর (২৭) এবং অজ্ঞাতনামা আরও দুজন। অন্যদিকে, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ড উপজেলার কদমরসুল এলাকায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ট্রাকের ধাক্কায় আমেনা বেগম (৬৫) নামে এক মানসিক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকাল ১০টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আমেনা বেগম কদমরসুল এলাকার মৃত বাছা মিয়ার স্ত্রী।

বগুড়া : বগুড়ার শেরপুর থানার ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) জাহিদ হাসান জানান, শনিবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঢাকা থেকে রংপুরগামী এনা পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বিপরীতমুখী চাঁদনী পরিবহন নামের বাসের মুখোমুখি সংর্ঘষ হয়। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজনের সহযোগিতায় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ৪১ জনকে উদ্ধার করে শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। শজিমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতেই চাঁদনী পরিবহন বাসের চালক জেলার কাহালু উপজেলার মালঞ্চা গ্রামের আমজাদ হোসেন আকন্দের ছেলে মিঠু আকন্দ (৩৫) ও বাসযাত্রী গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কাজুরিয়া গ্রামের রঞ্জু শেখের ছেলে সাজ্জাদ হোসেন (২২) মারা যান। এদিকে একই রাতে অনুমান আড়াইটার দিকে ঢাকাগামী এসআর ট্রাভেলসের একটি যাত্রীবাহী বাস শেরপুর উপজেলার ধুনটমোড় এলাকায় মহাসড়কের পাশে দাঁড়িয়ে থাকা একটি কার্গো ট্রাককে পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই বাসের সুপারভাইজার জেলার শিবগঞ্জ উপজেলা সদরের আবেদ আলীর ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৩৮) নিহত হন। এ ছাড়া আরও চার যাত্রী আহত হয়। তাদেরও শজিমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নারায়ণগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় এক নারী নিহত হয়েছে। গতকাল সকাল ৭টায় এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। নিহত ওই নারীর নাম মিনু আক্তার (৫৫)। পরে পুলিশ সকাল সাড়ে ৭টায় নিহত ওই নারীর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। নিহত মিনু আক্তার মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার উত্তর কামারগাঁও গ্রামের আবদুস সামাদের স্ত্রী। সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক রাসেল আহমেদ জানায়, রবিবার সকাল ৭টায় শিমরাইল-আদমজী সড়কের সিদ্ধিরগঞ্জপুল এলাকায় আদমজী ইপিজেডের শ্রমিক পরিবহনের একটি চলন্ত বাসের সামনে দিয়ে রাস্তা পার হওয়ার সময় মিনুকে চাপা দিলে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। এ সময় শ্রমিক পরিবহনের ওই বাসটি দ্রুত শিমরাইলের দিকে চলে যায়। তিনি আরও জানান, গাড়িটি শনাক্ত করা হয়েছে এবং আটকের প্রক্রিয়া চলছে। 

গাজীপুর : গাজীপুরের ভবানীপুরে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে বেপরোয়া গতির একটি লেগুনা উল্টে অন্তত ১০ যাত্রী আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চারজনকে স্থানীয় কাজী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। যাত্রীদের সবাই পোশাক শ্রমিক বলে জানা গেছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow