Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:৫৪
পেট্রল ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা
মৃত্যুর আগে বলে গেলেন সব, ভিডিও ফেসবুকে
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
bd-pratidin

পুরো শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে। চামড়া পুড়ে লাল মাংস বের হয়ে এসেছে। মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতরাচ্ছে লোকটি। মরার আগে এক ভিডিও ফুটেজে একে একে বলে গেলেন কে এবং কারা পেট্রল ঢেলে আগুন লাগিয়েছে তার শরীরে। সেই ভিডিও ফুটেজ এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল। প্রায় অর্ধ লক্ষবার ভিউআর দেখেছে ভিডিওটি। ঘটনাটি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার মাসদাইর এলাকার।

জানা গেছে, থানার মাসদাইর পাকাপুল এলাকায় সুমন (৩৫) নামের এক ঝুট ব্যবসায়ীকে পেট্রল দিয়ে আগুনে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে। ৩১ আগস্ট শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টায় উল্লিখিত এলাকায় হাবিব মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনাটি ঘটে। এরপর খানপুর ৩০০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালে সুমনের পরিবারের সদস্যরা সুমনের জবানবন্দিমূলক একটি ভিডিও ফুটেজ ধারণ করে। ভিডিও ফুটেজে সুমনকে জিজ্ঞেস করে কে কে তার শরীরে আগুন ধরিয়ে দেয়। মৃত্যু যন্ত্রণায় কাতরানো সুমন বলেন, বিপ্লব, শায়লা, সোহেল মণ্ডল, খানকা মোড়ের হোটেল মাসুদ ৩১ আগস্ট রাত সাড়ে ৯টায় বিপ্লব টাকা দেওয়ার কথা বলে মোবাইল ফোনে সুমনকে তাদের বাসায় ডেকে নেয়। বিপ্লব সুমনের শরীরে পেট্রল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। এ ঘটনার পর থেকে হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্তরা পলাতক। নিহতের স্ত্রী এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করেন। এ হত্যার পেছনের কারণ জানিয়ে নিহত ঝুট ব্যবসায়ী সুমনের ছোট বোন রিতা বেগম জানান, সুমনের বন্ধু বিপ্লব অটোরিকশা কেনার জন্য ও আরেক বন্ধু সোহেল মণ্ডল তাদের বাড়ির নির্মাণ কাজের জন্য সুমনের কাছ থেকে কয়েক মাস আগে ৭০ হাজার করে দুজন মিলে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা ধার নেয়। এক মাস পর এ টাকা ফেরত দেওয়ার কথা ছিল। বার বার চাইলেও তারা টাকা ফেরত দিচ্ছিল না। এদিকে ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, অভিযুক্তদের গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow