Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০৩
হাসিনা-মোদির নেতৃত্বে দুই দেশের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় : শ্রিংলা
নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল
হাসিনা-মোদির নেতৃত্বে দুই দেশের সম্পর্ক নতুন উচ্চতায় : শ্রিংলা
bd-pratidin

বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে একটি শক্তিশালী সম্পর্কের বীজবপন করেছেন। বর্তমানে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে এই সম্পর্ক আরও নতুন উচ্চতায় পৌঁছে গেছে। গতকাল বিকালে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ অডিটরিয়ামে ভারত সরকার কর্তৃক বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের মুক্তিযোদ্ধা স্কলারশিপ স্কিমের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে এসব কথা বলেন তিনি। এ সময় শ্রিংলা বলেন, ভারত এবং বাংলাদেশের মধ্যে একটা চমৎকার সম্পর্ক বিরাজ করছে। সুসময়ে এবং দুঃসময়ে ভারত বাংলাদেশের পাশে থাকবে। সাম্প্রতিককালে বাংলাদেশ আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে প্রচুর উন্নতি সাধন করেছে। বাংলাদেশ চরমপন্থিদের প্রত্যাখ্যান করেছে। বাংলাদেশে ৬ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ভারত। তিনি আরও বলেন, ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরকালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশের মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য তিনটি পদক্ষেপ যথা মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য নতুন স্কলারশিপ স্কিম, মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য ভারতে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা এবং সব মুক্তিযোদ্ধার জন্য ভারতে পাঁচ বছরের মাল্টিপল অ্যান্ট্রি ভিসা ঘোষণা করেছেন। হর্ষবর্ধন বলেন, নতুন মুক্তিযোদ্ধা স্কলাপশিপ স্কিমের আওতায় মুক্তিযোদ্ধাদের হাইস্কুল এবং বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া ১০ হাজার সন্তান ৩৫ কোটি টাকার বৃত্তি পাবে। ভারত সরকার মুক্তিযোদ্ধা স্কলারশিপের আওতায় মোট ৫৬ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে। গতকাল বরিশাল বিভাগের ১২০ জন শিক্ষার্থীকে। স্নাতক স্তরে ৫০ হাজার এবং মাধ্যমিক স্তরে ২০ হাজার টাকা বৃত্তি দেওয়া হয়। ২০০৬ সাল থেকে এই বৃত্তি প্রদান শুরু করে ভারত সরকার। এ পর্যন্ত ১২ হাজার ৬৬১ জনকে ২১ কোটি টাকা বৃত্তি প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে বরিশাল-২ আসনের এমপি তালুকদার মো. ইউনুচ, বরিশাল-৪ আসনের এমপি পঙ্কজ নাথ এবং গত ৩০ জুলাই অনুষ্ঠিত সিটি নির্বাচনে বিপুল ভোটে এগিয়ে থাকা আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলাল এবং শেরেবাংলা এ কে ফজলুল হকের ছেলে ফাইয়াজুল হক রাজু বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠানে মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোশারফ হোসেন, জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান এবং অতিরিক্ত ডিআইজি মো. আজাদ মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

up-arrow